ঘরে বসে চাকরি করুন এই ১৫টি সাইটে

ঘরে বসে চাকরি করুন ২০২১

বাংলাদেশের বেশিরভাগ লোকই বিকাশে পেমেন্ট করে এমন জব চায়। কিন্তু ঐসকল জব তো আর জবের মতো না। বেশিরভাগ সাইট যেগুলো বলে বিকাশে পেমেন্ট করে। তারা হয় ভুয়া , নয়তো খুব কম টাকা দেয়। কিন্তু ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে পে-আউট পাবেন। এরকম অনেক গুলো জব নিয়ে আলোচনা করবো। যেখানে ঘরে বসে চাকরি কিংবা আয় করতে পারেন। নিজের ব্যাংক একাউন্টে পেমেন্ট চলে যাবার মতো শান্তি কোথায় আছে বলুন ?

কিভাবে চাকরির পেমেন্ট পাওয়া যেতে পারে?

ঘরে বসে অনলাইনে জব করার এমন অনেক সুযোগ আছে। যেখানে চাইলেই ঘরে বসে জব করা যায়। যেখানে ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে পেমেন্ট দেয়া হয়। সাইটগুলোর অনেকেই দৈনিক, সাপ্তাহিক বা মাসিক পেমেন্ট করে। এখানে আপনি বেশি পরিমাণে আয় করতে পারবেন।

দেখুন বিকাশে কিন্তু ক্যাশ-আউটে যথেস্ট চার্জ কাটে। আবার নগদে পেমেন্ট দেয় এরকম সাইট কখনো চোখে দেখি নি। এখন এ নিয়ে কোনো চিন্তা নেই। একটি ব্যাংক একাউন্ট নিন। আর ঘরে বসে জব করুন বিশ্বের সকল সাইটে। দি্নশেষে টাকা আপনার হাতের মুঠোয়।নিচে আমি এরকম ১৫টি সাইট উল্লেখ করেছিঃ

বিঃদ্রঃ সাইটগুলোর লিংক এদের নামের উপর ক্লিক করলেই পাবেন।




ঘরে বসে চাকরি করার ১৫টি ওয়েবসাইট:

১) Measurement, Inc অনলাইনে লেখালেখি করে ঘরে বসে আয়।

এই কোম্পানিটি অনেক জনপ্রিয়। এখানে ইংরেজি নানা প্যারাগ্রাফ, ইজে, এপ্লিকেশন লেখালেখি হয়। সেগুলো অনলাইনে বিলিয়ে দেয়া হয়। কিছু ক্ষেত্রে এগুলো পেইড হতে পারে। এখানে কাজ করার জন্য যেকোনো ব্যাচেলর ডিগ্রী থাকা লাগবে। এখানে খুব ভালো আর্নিং করা সম্ভব। এখানে পেমেন্ট ব্যাংকে ডিপোসিট করা হয়।


২) Qkids: ইংরেজি টিউশন করে ঘরে বসে আয়।

এখানে ইংরেজী অনলাইনে শেখানো হয়। যদি ইংরেজিতে বিশেষ পারদর্শী হোন, তাহলে এখান থেকেও আয় করা সম্ভব। ইংরেজিতে কোনো ব্যাচেলর ডিগ্রী থাকলেই কাজ করা সম্ভব। প্রতি ঘন্টা ইংরেজি শিখানোর জন্য ১৬-২০ ডলার দেয়া হয়। এখানেও ব্যাংকে পেমেন্ট দেয়া হয়। এখানে সহজেই ঘরে বসে জব করা যায়।

৩) teacher.qkids.com লেখা সম্পাদনা করার চাক...

এই সাইটে লেখা সম্পাদনা করে ইনকাম করতে পারেন। কোনো একটি প্রতিলিপি ঠিক করে এডিট করবেন। এতে বেশ শ্রম হয়। আর এর বদলে ঘরে বসে চাকরি করা যায়। যারা আপনার সাথে এ কাজের জন্য কন্ট্রাক্ট করবে, তারা প্রতি ঘন্টা কাজের হিসেবে ১০-৩০ ডলার পেমেন্ট করবে। ডলার দেখে ঘাবড়িয়েন না। এটা সরাসরি ব্যাংক ডিপোসিট করে। আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা চলে আসবে।

আমাদের সবারই হয়তো ব্যাংক একাউন্ট আছে। যদি না থেকে থাকে, তবে গিয়ে খুলে ফেলুন। যেকোনো সরকারী ব্যাংকে একাউন্ট ফ্রীতে খুলা যায়। আপনাকে শুধু মাত্র সাইটে ব্যাংক ডিটেইলস এড করতে হবে। এতে ব্যাংক একাউন্টের কোনো সমস্যা হয় না। সেখান থেকে অটোমেটিক্যালি পেমেন্ট পৌছে যাবে।

৪) Yup অনলাইনে টিউশন সার্ভিস।

এটি অনলাইনে টিউশন করানোর সার্ভিস দিবে। এখানে গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন পড়ানো সম্ভব। এখানে বিভিন্ন দেশ, এমনকি বাংলাদেশের ছাত্র-ছাত্রীও থাকতে পারে। এখানে যেকোনো একটি বিষয় সিলেক্ট করে নিন। তার উপর পরীক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণ হলেই হবে। এখানে টিউশন করিইয়ে মাসিক ১০০০ ডলার আয় করা যায়।

৫) acddirect.com ভার্চুয়াল কল-সেন্টার।

এটি একটি ভার্চুয়াল কল-সেন্টার। এখানে ঘরে বসে এখানে টাকা ইনকাম করার আবেদন করুন। আবেদন উত্তীর্ণ হলে ঘরে বসে জব করতে পারবেন। তারা বিশ্বব্যাপী কাজ দেয়। এখানেও ব্যাংকে ডিপোসিট দেয়া হয়।

৬) KellyConnect ঘরে বসে চাকরি মেয়েদের জন্য।

একটি রিমোট কল সেন্টার। এখানেও ঘরে বসে অনলাইনে জব করা যায়। এখানে সরাসরী ব্যাংক ডিপোসিট দেয়া হয়। এখানে সহজেই ঘরে বসে ভালো চাকরি করে নিতে পারেন
ঘরে-বসে-চাকরি


৭) www.lionbridge.com

এসইও স্পেশালিস্টদের জব অফার করে। এসইও সম্বন্ধে একটু-আধটু ধাওরণা থাকলেও এখানে ট্রাই করুন। এখানে মাসিক হারে পেমেন্ট করা হয়। ভালো পরিমাণে আয়ও করা যায়।

পড়ুনঃ

৮) www.mturk.com বা “Turkers”

এখানে ছোটো ছোটো টাস্ক পূরণের মাধ্যমে আয় করা যায়। এখানকার ইনকাম আপনি এমাজনের পেমেন্ট একাউন্ট পাঠাতে পারবেন। তারপর সেখান থেকে ব্যাংক একাউন্টে ডিপোসিট করা যায়।

এমাজনে আরেকটি আর্নিং প্রোগ্রাম আছে। এখানে ঘরে বসে চাকরি করা যায় । হোম কাস্টমার। ঐ একই প্রোগ্রামেও ব্যাংক ডিপোসিটে আর্নিং নেয়া যায়।

৯) appen.com/ এসইও শিখুন ও শেখান।

একটি দামী সাইট। এরা সোশ্যাল মিডিয়া এবং সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজশনে অভিজ্ঞ যে কাউকে ভাড়া করে নেয়। এখানে নির্দিষ্ট সিডিউল মাফিক কাজ করতে হয়। এখানে গিয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন। আর এ সাইটেও একইভাবে ব্যাংকে পেমেন্ট দেয়া হয়।

১০) LiveOps

এখানে তাদের নীতি অনুযায়ী কাজ করতে হবে। তারা মাসে ২ বার পেমেন্ট দেয়। ব্যাংক একাউন্ট ডিপোসিট করার সুবিধা আছে। এটিও একটি জনপ্রিয় কল-সেন্টার।

১১) Westat

এখানে টেলিফোন ডাটা সংগ্রহ করা হয়। এখানেও অনলাইনে জব করা যায়। এখানে প্রতি শুক্রবার পেমেন্ট করা হয়।

১২) Working Solutions কাস্টমার কেয়ার।

এখানে কাস্টমার-সার্ভিস প্রদানের জন্য কাজ করা যায়। এখানে স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারেন। সপ্তাহে মোট ১৫ ঘন্টা কাজ করতে হবে। এWestatখানে দ্রুত পেমেন্ট দেয়া হয়।


১৩) Amazon Flex বিদেশীদের জন্য সুযোগ।

এই জবটি যদিও বাংলাদেশেও এভেইলেবেল নয়। তবে এর সম্বন্ধে কিছু ধারণা দিই। এখানে আপনার নিজের যেকোনো গাড়ি থাকতে হবে। সেটি ভাড়া-চালিত হলেও হবে। সাথে নিজের লাইসেন্সও থাকতে হবে। এখানে দৈনিক ৫টা ডেলিভার দিলেই, প্রতিঘন্টার হিসেবে ১৮-২৫ ডলার আয় করা যাবে। এখানে সপ্তাহে দুইবার পেমেন্ট দেয়া হয়।


১৪) Clickworker পিটিসি জব (সাময়িক)

আরেকটি টাস্ক-সাইট। আমরা যে পিটিসি সাইট চিনি, ঠিক এরকমই। এখানে টাস্ক পূরণে পেমেন্ট দেয়া হয়। যেটি আমরা ব্যাংক একাউন্টে ডিপোসিট করতে পারি।

১৫) www.languageline.com ভাষা ব্যবহার ও ট্রান্সলেট।

ভালো ভাষা ব্যবহারে উপযোগী হলেই হবে। এখানে ভাষা ট্রান্সলেট সম্বন্ধে ভালো জানা লাগবে। আর তা হলেই আয় করা সম্ভব। এখানে সাপ্তাহিক হিসেবে পেমেন্ট দেয়া হবে।

উপরে উল্লেখিত সকল জবস এর পেমেন্ট ব্যাংক একাউন্টে দেয়া হয়। কোনো প্রকার দ্বিধাগ্রস্ত হওয়ার দরকার নেই। যত ডলার আয় হবে, তা সরাসরি ব্যাংক থেকে ক্যাশ-আউট করতে পারবেন। ইসলামী ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক এখানে বিদেশী কারেন্সী সাপোর্ট করে। ব্লগটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন। আরও কতগুলো ব্লগ পড়ার অনুরোধ রইল। ধন্যবাদ।


পরিশেষে,

আজকের ব্লগের মাধ্যমে আমরা ঘরে বসে চাকরি করার দারুন সব সাইট সম্পর্কে জানলাম। চাইলে বাংলাদেশি হয়ে কাজ করতে পারেন, যদি ইংরেজিতে দক্ষ থাকেন তো। অনলাইনে এরকম ছোটো-খাটো জব অনেক আছে। কিন্তু আমরা কেউই সেখানে অতো আগ্রহী না । ভালো লাগলে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।
পড়ুনঃ




Post a Comment

কমেন্ট করার মিনতি করছি। আমরা আপনার কমেন্টকে যথেস্ট মূল্য প্রদান করি। এটি আমাদের সার্ভিসের অংশ।

তবে কোনো ওয়েবসাইট লিংক প্রকাশ না করার অনুরোধ রইল।

Previous Post Next Post