এডে ক্লিক করে প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করার সেরা ওয়েবসাইট

প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম।  আপনি নিশ্চয়ই টাকা আয় করার চিন্তা করছেন। কিন্তু অনলাইনে টাকা আয় করার উপায় সমূহ খুঁজতে গিয়ে অনেক বিভ্রান্ত হচ্ছেন। 

কেউ বলছে, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করুন। কেউবা বলছে, স্পনসর্ড কনটেন্ট লিখে আয় করুন। অথবা কেউ বলে নিজের একটি অনলাইন স্টোর খুলে ফেলুন। আয় করার উপায়সমূহ আপনার মানানসই হচ্ছে না। হয়তো আপনি খাপ খাওয়াতেও পারছেন না। কিন্তু। এড এ ক্লিক করেও যে আয় করা যায় তা কি জানেন? 

প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম

তার কারণ সকলের দক্ষতা অনলাইন স্টোর দেয়া কিংবা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে থাকে না। তাহলে সহজেই অনলাইন থেকে আয় করবেন কিভাবে? আপনি চাইলে এড এ ক্লিক করে টাকা আয় করতে পারেন। আজকে আমরা এরকম 10 টি ওয়েবসাইট সম্বন্ধে জানব। এসকল ওয়েবসাইটে কাজ করলে, এডে ক্লিক করে ভালো ইনকাম করা যায়।


এড এ ক্লিক করা বলতে কি বোঝায়? PTC, GPT কি?

তার আগে আপনাকে কিছু বিষয় জানতে হবে। আমার দেখানো সাইট গুলো হচ্ছে পিটিসি সাইট বা PTC Sites।

PTC এর মানে হল পেইড-টু-ক্লিক। অর্থাৎ একটি এডে ক্লিক করবেন, তার জন্য আপনাকে টাকা পেইড করা হবে। তাছাড়া আছে GPT। GPT এর মানে হল Get Paid To। 

এ ধরনের এড এ ক্লিক করে আয় করার ওয়েবসাইট গুলোর একটি লিস্ট তুলে ধরেছি। এবং ওয়েব সাইট গুলোতে খুব সহজেই টাকা আয় করা যায়।


এড এ ক্লিক করে প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করার ১০টি সাইট | এড দেখে টাকা ইনকাম।

1. Neobux

2. GPTplanet

3. Get-Paid

4. ScarletClicks

5. ySense

6. Offernation

7. Ayuwage

8. Swagbucks

9. FusionCash

10. Bux Inc


প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করার সাইট কি কি?

1. Neobux

আপনি যদি এড এ ক্লিক করে টাকা আয় করতে চান। তবে Neobux আপনার জন্য সর্বপ্রথমেই আসে। আপনার এড এ ক্লিক করার কোয়ালিটি দেখে, পাশাপাশি সাইন আপ করার প্লাটফর্ম দেখে এখানে ডলার বোনাস নেয়া যায়। পাশাপাশি এখান থেকে এড এ ক্লিক করে ডলার ইনকাম করা যায়।

এখানে কত আয় করবেন তা আপনার এড এ ক্লিক করার পরিমাণ, কোন ধরনের এড এ ক্লিক করছেন? তার ওপর নির্ভর করে।

Neobux এ এডে ক্লিক করার কোনো প্রকার সীমাবদ্ধতা নেই। আপনি দিনে ইচ্ছেমতো এড এ ক্লিক করতে পারেন। এবং সে মোতাবেক আপনার ইনকাম জেনারেট হবে। তবে এখানে ক্লিক করার ক্ষেত্রে কিছু রুলস আছে। পাশাপাশি কিভাবে এড এ ক্লিক করে কতক্ষণ অপেক্ষা করবেন? সে সম্বন্ধেও আপনি জেনে নিলে উপকৃত হবেন।প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করা যাবে।

তার জন্য তাদের অফিসিয়াল সাইটে, সে সম্বন্ধে বলে দেয়া আছে। এখানে মিনিমাম উইথড্রয়াল অ্যামাউন্ট 2 USD।  Neobux থেকে Skrill, Neteller পেমেন্ট মেথড ব্যবহার করে টাকা উইথড্র করতে পারবেন। বাংলাদেশ Skrill একাউন্ট খোলা যায়। জানতে গুগলে সার্চ করুনঃ বাংলাদেশ থেকে Skrill একাউন্ট খোলার নিয়ম। 


2. GPTplanet

জিপিটিপ্লানেট (GPTplanet) এ আপনি প্রতি এড এ ক্লিক করার জন্য 0.01 ডলার পেয়ে যাবেন। এখানে আপনি অনলাইন ফর্ম কিংবা জরিপ পূরণ করে আয় করতে পারেন। এফিলিয়েট মার্কেটিং এর প্রোগ্রাম আছে। সে প্রোগ্রাম ব্যবহার করে যদি  আরো মেম্বার এই ওয়েবসাইটে নিয়ে আসতে পারেন, তাহলে আরো বেশি ইনকাম করা যাবে।

জিপিটিপ্লানেট হতে ইনকাম করার জন্য শুধুমাত্র এডে ক্লিক করে টাকা আয় করতে হয়। তা ছাড়া আর কোন ব্যপার স্যাপার নেই। এখানে সম্পূর্ণ ফ্রি এবং সহজেই সাইনআপ অপশনে ক্লিক করে, পার্সোনাল ইনফরমেশন দিয়ে দিলে সাইনআপ করে নেয়া যায়। এখানে আপনি নিজের মতো করে সার্ভে পূরণ করেও ইনকাম শুরু করতে পারেন।


3. Get-Paid

Get-Paid একটি চমৎকার ওয়েবসাইট। যেখানে এড এ ক্লিক করে আয় করা যাবে। এটি 2005 সাল থেকে অনলাইনে চলে আসছে। এবং এখানে Coin সিস্টেম রয়েছে। সে কয়েন সিস্টেম অনুযায়ী, ইউজারদেরকে বিভিন্ন টাস্ক পুরন করে কয়েন অর্জন করতে হবে। অর্থাৎ কয়েন জমাতে হবে। সেগুলো পরবর্তীতে রেডিম করে নেয়া যায় এবং ইনকাম হয় বেশি।

এখানে ইনকাম করার জন্য আপনাকে এড এ ক্লিক করতে হবে। ফর্ম বা সার্ভে পূরণ করতে হবে অর্থাৎ জরিপ পূরণ করতে হবে। বিভিন্ন অনলাইন সার্ভে প্যাক নিতে হবে। কিছু ব্র্যান্ড ও কনটেস্ট আছে, যে কন্টেস্ট গুলো থেকে 5 থেকে শুরু করে 20 ডলার পর্যন্ত উপার্জন করে নেয়া যায়। 

এখানে আপনি উইথড্র করার জন্য পেপাল একাউন্ট ব্যবহার করতে পারেন।  কিভাবে পেপাল একাউন্ট ব্যবহার করতে হয়? তা আমরা সবাই জানি। যদি না জানেন, তবে নিচের ব্লগটি পড়ে নিলে উপকৃত হবেন। সহজেই প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।


4. ScarletClicks

Scarlet Clicks আসলে GPTplanet এর মতই একটি ওয়েব সাইট। এখানে প্রতি ক্লিকে 1 সেন্ট করে দেয়া হয়। এবং এখানে মিনিমাম উইথড্রয়াল হলো মাত্র  2 USD। এখানে এডে ক্লিক করে, জরিপ পূরণ করে আয় করতে পারেন। এছাড়াও ভিডিও দেখেও টাকা ইনকাম করা যাবে।

এখানে বিভিন্ন ধরনের অফার আছে।  বিশেষ করে প্রিমিয়াম মেম্বারশিপ আছে। সেগুলো ক্রয় করে নিলে, আরো বেশি ইনকাম হয়। তাছাড়া এসকল পিটিসি সাইটে রেফার করে আয় করা যায়। এখানে পেমেন্ট মেথড গুলো হল Neteller, AirTM, Srkill। 

এটি আপনাকে খুব ভালো সার্ভিস অফার করবে। আপনি এখানে কি করবেন ও কিভাবে আয় করবেন? তা সরাসরি অফিসিয়াল সাইটে গিয়ে বুঝতে পারবেন। এদের রয়েছে ভালো সাপোর্ট। সে অনুযায়ী কাজ করে ইনকাম করে নিতে পারেন।


5. ySense

ySense পুরো বিশ্বে তাদের একটি কমিউনিটি তৈরি করে নিয়েছে। তাদের সে কমিউনিটিতে অসংখ্য ইউজার আছে। যারা প্রতিনিয়ত পিটিসি সাইটে এডে ক্লিক করে টাকা আয় করছে। যদি আপনিও তাদের কমিটিতে যোগ করতে চান, নিয়োগ হতে চান, তবে সরাসরি তাদের ওয়েবসাইটে গিয়ে সাইন আপ করে নিন। 

সেখানে অ্যাড এ ক্লিক করে, জরিপ পূরণ করে ও টাস্ক পুরন করে আয় করা যায়। এখানে বিভিন্ন ফরম্যাটে একেক জনের একেক ধরনের উপার্জন আসে। এখানে ওয়েবসাইট ভিজিটিং এর মাধ্যমে উপার্জন হয়। কিছু সার্চ করে ইনকাম করা যায়। তাছাড়া এ ওয়েবসাইটে রেফার করা যায়। প্রেমিয়াম কিনা যায়। এবং সে অনুযায়ী ইনকাম আরো বাড়তে থাকে।

এখানে অ্যাপস ডাউনলোড করে, ভিডিও দেখে, নতুন নতুন ওয়েবসাইটে সাইনআপ করে ইনকাম করা যায়।


6. Offernation

offernation আরেকটি ভালো পিটিসি সাইট। এই পিটিসি সাইটে আপনি সর্বোচ্চ প্রতি ক্লিকে 25 সেন্ট পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন। যত বেশি দিন কাজ করবেন, ধীরে ধীরে আপনার ইনকাম তত বাড়তে থাকবে। এখানে প্রিমিয়াম মেম্বারশিপ মিলে ইনকাম আরো ভালো হয়। 

প্রিমিয়াম মেম্বারশিপের বদৌলতে একটি এডে ক্লিক করলে 5 ডলার পর্যন্ত ইনকাম নেয়া যায়। তবে এর জন্য আপনাকে অবশ্যই আমেরিকান ভিপিএন, প্রিমিয়াম ভিপিএন ব্যবহার করে নিতে হবে। এখানে প্রথমবার সাইন আপ করলে আপনাকে 25 cent প্রদান করা হবে। প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম হবে সর্বোচ্চ।

আপনি এখানে GPT অনুযায়ী ইনকাম পাবেন। এখানে এড এ ক্লিক করে, জরিপ পূরণ করে ইনকাম করা যায়। এখানে বিশেষ বিশেষ রেফার করার সিস্টেম আছে। সে অনুযায়ী উপার্জন নিতে পারেন।.


7. Ayuwage

এটিও একটি GPT ওয়েবসাইট। এবং এটি 2009 সালের দিকে যাত্রা শুরু করে। এখানে ভিডিও দেখে, এড এ ক্লিক করে, জরিপ পূরণ করে ইনকাম করা যায়।

এ ওয়েবসাইটের একদম সামনের পেজে ৬টি ভিডিও গাইডলাইন আছে, যে কিভাবে ভিডিও দেখে ইনকাম করা লাগে? তাদের এখানে ক্যাশ এমনকি আমাজন গিফট কার্ড ব্যবহার করে টাকা উইথড্র করতে পারবেন।


8. Swagbucks: প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করার ভালো উপায়।

সোয়াগবাক অ্যাপ এর মূল ফিচার তাদের জন্যই অ্যাভেলেবল  যারা USA, UK কিংবা কানাডা এসব জায়গায় বসবাস করে। আপনি বাংলাদেশ থেকে তাহলে কিভাবে কাজ করবেন? এজন্য আপনাকে একটি আমেরিকান ভিপিএন কানেকশন ব্যাবহার করতে হবে। প্রেমিয়াম ভিপিএন। এর জন্য প্রিমিয়াম ভিপিএন অথবা কোনো USA আইপি অ্যাড্রেস ব্যবহার করতে হবে। 

আপনি বাংলাদেশ থেকে আমেরিকান সার্ভারের আইপি অ্যাড্রেস টাকার বিনিময়ে ক্র‍য় করে নিতে পারবেন। একবার ক্রয় করে নিলে সোয়াগবাক্স সহ সকল পিটিসি সাইটে আপনি উপার্জন নিতে পারেন। ভালো পরিমাণে। 

সোহায়বাক্সে ভিডিও দেখে, গেমস খেলে, অ্যাড এ ক্লিক করে, এমনকি জরিপ পূরণ করে উপার্জন করা যায়। সোয়াগবাক্স একটি জরিপ পূরণ করার ওয়েবসাইট। পূরণ করে এখানে 5 ডলার, এমনকি 10 ডলার পর্যন্ত উপার্জন করা সম্ভব।

সোহাগবাক্স এখন পর্যন্ত প্রায় 450 মিলিয়ন ডলার ইউজারদেরকে উইথড্র করিয়ে দিয়েছে। কাজেই আপনি এখান থেকে টাকা ইনকাম পাবেন শতভাগ নিশ্চিত। এখানে আছে SB Points। আপনি যখন 50 পয়েন্ট উপার্জন করতে পারবেন, তখনই আপনি তা সরাসরি গিফট কার্ড এর মাধ্যমে ক্যাশ হিসেবে রিডিম করতে পারেন। তাছাড়া পেপাল ব্যবহার করে টাকা উইথড্র করিয়ে নেয়া যায়।


9. FusionCash

FusionCash অন্যান্য পিটিসি সাইটের একটি অল্টারনেটিভ। ফিউশনক্যাশে  আপনি ঘরে বসে এডে ক্লিক করে আয় করতে পারেন। ফিউশন ক্যাশ আপনাকে খুব দারুন সব সুবিধা দিবে অতিরিক্ত টাকা ইনকাম করে নেয়ার জন্য। এখানে এডে ক্লিক করে অথবা ফরম পূরণ করে ইনকাম করতে পারেন। 

তাছাড়া এখানে সার্ভে পূরণ করেও ইনকাম করা যায়। বিভিন্ন মোবাইল অ্যাপস ইন্সটল করে ইনকাম করা যাবে। 

যারা আমেরিকায় বসবাস করছে ওইসব এলাকায় এই অ্যাপ্লিকেশনটি আছে। আপনি যখন 25 ডলার ইনকাম নিয়ে নিতে পারবেন, তখন Fusion Cash থেকে পেপাল, গিফট কার্ড এর মাধ্যমে রিডিম করে নিতে পারবেন।


10. Bux Inc

বাক্স ইনক একটি পিটিসি সাইট। এবং এখানে এড এ ক্লিক করে, ভালোমতো টাকা আয় করা যায়। এটি তাদের ইউজারদেরকে দারুন দারুন সব ডলার বোনাস প্রদান করে। যেকোনো একটি অ্যাডভারটাইজার পেইজে 30 সেকেন্ড ওয়েট করলে আপনাকে ডলার দেয়া হবে।

তাদের নিয়মিত 1 Lakh ইউজার রয়েছে, যারা এডে ক্লিক করে ইনকাম করছে। এবং তারা এখন পর্যন্ত 1.5 মিলিয়ন ডলার উইথড্র করেছে। ইউজারদের মাঝে তাহলে আপনি হিসাব করে দেখতে পারেন, যে গড়ে ইউজাররা কত ইনকাম করছে?


এই PTC সাইটগুলোতে ইনকাম করার জন্য কি কি প্রয়োজন?

১) একটি স্মার্টিফোন।

২) USA, UK পেইড আইপি এড্রেস অথবা প্রিমিয়াম ভিপিএন কানেকশন।

৩) একটি পেপাল, পেউনার বা স্ক্রিল একাউন্ট।

আমি আপনাদের কিছু পিটিসি সাইট উল্লেখ করে দিলাম। যাতে বুঝতে পারেন যে এডে ক্লিক করে কোন কোন সাইট থেকে বিশ্বস্ততার সাথে ইনকাম করা যায়? যাতে কোন স্প্যামিংয়ের শিকার না হন। 

বাংলাদেশের কোনো পিটিসি সাইট থেকে ইনকাম করতে যাবেন না। এতে আপনি প্রতারণার শিকার হবেন। অথবা ইনকাম খুবই কম আসবে। যেটা আসলেই খুবই খারাপ বিষয়।

তাছাড়া পিটিসি সাইট গুলোতে কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। এবং এই সম্বন্ধে আমি আপনাদের অবগত করে রাখলে উপকৃত হবেন।


বৈদেশিক পিটিসি সাইট গুলো কি বাংলাদেশ থেকে ব্যবহার করা যাবে?

কয়েকটি পিটিসি সাইট ব্যতীত বাকি সব পিটিসি সাইটই বাংলাদেশ থেকে ব্যবহার করা যাবে। বাকি সাইটগুলো আপনার দেশকে তারা সাইনআপ করতে দিবে না। আর যদিও সাইনআপ করতে দেয়, ইনকাম হবে খুবই কম। 

সে দিক থেকে যদি পিটিসি সাইট গুলোতে ভালো ইনকাম করতে চান, তবে আপনাকে রেফার করার ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করতে হবে। বেশি বেশি ইউজার রেফার করতে হবে। কারণ সকল পিটিসি সাইটের ব্যবহারে রেফার করার মাঝে একটি নিয়ম আছে। তাহলো আপনার রেফার করা ব্যক্তিটির লাইফটাইম 15 ভাগ থেকে 50 ভাগ উপার্জন আপনাকে প্রদান করা হবে।

তাছাড়া ইনকাম করার জন্য কিছু বিজনেস প্ল্যান কাজে লাগাতে হয়। আপনি যত উপার্জন করছেন অথবা এড এ ক্লিক করে যত উপার্জন করলেন। তা ব্যবহারে মেম্বারশিপ ক্রয় করে পরবর্তীতে আরও দ্বিগুন উপার্জন করতে পারেন। একেক ধরনের পিটিসি সাইট আছে, সেগুলোতে গেলেই বুঝতে পারবেন। 

তাছাড়া যদি বলি, সকল ধরনের পিটিসি সাইটে ইনকাম খুবই কম আসে। যেমন ধরুন আপনি এক মাস লাগাতার পরিশ্রম করে বাংলাদেশ হতে সর্বোচ্চ 1000 টাকা ইনকাম করতে পারেন। যেটা অনেক নগণ্য। এবং সে দিক থেকে এত পরিশ্রমের বদলে এতো কম ইনকাম আসাটা যথার্থ। তার কারণ, আপনি কিছু এড এ ক্লিক করছেন। কোন উপার্জন ভূমিকা রাখছেন না।

বড় বড় প্ল্যাটফর্ম, কোম্পানি PTC Ads এলাও করে না। তারা নিজেদের অ্যাড কখনোই এ প্লাটফর্মে দেয় না। সে কারণে পিটিসি প্লাটফর্মে সীমাবদ্ধতা থাকে এবং ইনকাম কম আসে। এসব সাইটে এড দেখে ইনকাম করার একমাত্র উপায় হল একটি আইপি এড্রেস ক্রয় করে নেওয়া।

যাতে বেশি বেশি ইনকাম নেয়া যায়। তাছাড়া বাংলাদেশ থেকে আপনি ভালো ইনকাম পাবেন না। যেমনটা বললাম, যদি আইপি এড্রেস অথবা প্রিমিয়ামে ভিপিএন ইউজ করে কাজ করেন। তবে আপনি মাসিক 200 ডলার উপার্জন করে নিতে পারবেন। তার কারণ হলো, বেশি বেশি জরিপ পূরণ করতে পারবেন। যা আপনার ইনকাম কে অনেক বেশি করে দিবে।


শেষ কথাঃ

বাংলাদেশ থেকে আমি কাউকে পিটিসি সাইটে কাজ করার জন্য বলছি না। কোনো ক্ষেত্রে কাজ করার জন্য ইনভেস্ট করতেই হয়। আপনাকে একটি আইপি অ্যাড্রেস ক্রয় করে নিতে হবে। যাতে আপনি ভালোমতো উপার্জন করতে পারেন। তাছাড়া যদি কাজ করেন, তবে আপনার রেফার করার দক্ষতার উপর বেশি উপার্জন আসবে। এমনকি প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করা যাবে।

PTC ইনকাম বুস্ট করার উপায়, এ ব্যাপারে একটি ইউটিউব ভিডিও দেখে নিলে আরো বেশি জানবেন। যদি আমার দেখানো সাইটগুলোতে ইনকাম করতে চান। তবে আমি বলবো এগুলো বিশ্বস্ত। তাছাড়া অন্যান্য সাইট থেকে ইনকাম করার চেষ্টা করবেন না। তাহলে প্রতারিত হওয়ার সুযোগ থাকে। ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন। আর সাবস্ক্রাইব বাটনে ক্লিক করে দিন। যাতে করে আপনি সবসময় আমাদের নোটিফিকেশন পান। ধন্যবাদ। খোদা হাফেজ।


Rakib

রাকিব "এক্সপার্ট বাংলাদেশ" এর প্রতিষ্ঠাতা এবং মালিক। সে অবসর সময়ে ব্লগিং ও লেখালেখি করতে ভালোবাসে। তাছাড়াও, অনলাইনে নতুন কিছু শেখা তার প্রধান শখ।

4 Comments

কমেন্ট করার মিনতি করছি। আমরা আপনার কমেন্টকে যথেস্ট মূল্য প্রদান করি। এটি আমাদের সার্ভিসের অংশ।

তবে কোনো ওয়েবসাইট লিংক প্রকাশ না করার অনুরোধ রইল।

  1. আমি এইভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য অনেকদিন থেকে চেষ্টা করতেছি কিন্তু কোনোভাবে পারতেছিনা।
    প্লিজ হেল্প করেন আমাকে।

    ReplyDelete
    Replies
    1. আপনাকে নির্দিষ্ট কোনো পিটিসি সাইটে লাগাতার চেস্টা করে যেতে হবে। এসবে ১-২ সপ্তাহে ভালো ইনকাম করা যায় না। মাস ব্যাপী লেগে থাকে আয় করার চিন্তা করতে হয়। বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্বস্ত গ্রুপ থেকে ১ বছরের জন্য এমেরিকার আইপি কিনে নিন। তারপর কাজ করা শুরু করলে সহজেই জরিপ ও এডে ক্লিক করে আয় করতে পারবেন। আয়ের পরিমাণটাও হবে বেশি

      Delete
  2. খুব সুন্দর ও দরকারি একটি পোস্ট

    ReplyDelete
    Replies
    1. ধন্যবাদ আপনাকে।

      Delete
Previous Post Next Post