জাভা গেম খেলে টাকা আয় করুন সহজেই

                                  জাভা গেম খেলে টাকা আয়

কিভাবে জাভা গেম খেলে টাকা আয় করবেন?

আজকে আমরা আলোচনা করব, জাভা গেম খেলে টাকা আয় করা কি সম্ভব কিনা? পাশাপাশি আলোচনা করব, জাভা গেম বলতে কি বুঝায়? এবং জাভা গেম গুলোর কোনো কদর বর্তমান আছে কিনা? তা থেকে আয় করার উপায় কি? কিংবা তার থেকে আয় করার উপায় ভালো কেন নেই? তা নিয়ে আলোচনা করবো।



জাভা মোবাইলে জাভা গেম খেলে আয়ঃ

জাভা মোবাইল কি?

আজ থেকে 10 বছর আগেও জাভা মোবাইল এর যথেষ্ট কদর ছিল। ফিচার মোবাইলগুলো বর্তমানে এখনো অনেকেই ব্যবহার করে। জাভা(Java) একটি অপারেটিং সিস্টেম। যেটি শুরুর মোবাইলে অর্থাৎ বাটন ফোনে বেশ প্রচলন ছিল।


যেই মাত্র অ্যান্ড্রয়েড এবং IOS স্মার্টফোন হাতের নাগালে চলে এলো। সেই থেকে জাভা ফোন একটা বিলুপ্ত হয়ে যায়। তার কারনে জাভা ফোনের ইউজার কমে যায়। আর জাভা মোবাইলে আপনি তেমন কোনো সুযোগ সুবিধা পাবেন না। 



জাভা গেম গুলো কি?

জাভ গেম হলো .jar এক্সটেনশন এর যে কোনো এন্ড্রয়েড কিংবা পিসি গেম। আপনি চাইলে যেকোনো একটি এন্ড্রয়েড গেমস, সহজেই জাভা গেমে পরিণত করতে পারেন। তার জন্য কিছু নিয়ম নীতি আছে। এ জাভা গেম গুলো বর্তমান কিছু ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করে নেয়া যায়। 

চলুন দেখে নেই, 


জাভা গেম ডাউনলোড করার উপায়ঃ

জাভা গেম ডাউনলোড করার জন্য কয়েকটি ওয়েবসাইট আছে। তার মধ্যে আছে phoneky.com। এই ওয়েবসাইট যেকোনো ধরনের জাভা গেম এর কালেকশন রাখে। তাদের ওয়েবসাইটে গেলে আপনি যেকোনো একটি জাভা গেম ডাউনলোড করতে পারবেন। 

সেগুলো মূলত .jar এক্সটেনশন জনিত গেম। গেম গুলো আপনি জাভা ফোনে খেলতে পারবেন। 


জাভা গেম খেলে টাকা আয় করার উপায় কি?

জাভা গেম গুলো মানুষের পুরনো স্মৃতি বহন করে নিয়ে যায়। এই জাভা গেমস গুলোর কথাগুলো নিয়ে যদি আমি লেখালেখি করি। তাহলে বুঝতে পারেন, সেখান থেকে উপার্জন করে নেয়া যায় না। 


তাছাড়া জাভা গেম গুলো থেকে উপার্জন করার জন্য কোন ধরনের উপায় রাখেনি। কারণ হচ্ছে এমন কোন এপ্লিকেশন কিংবা এপ, আপনি যেখানে জাভা গেম খেলার জন্য টাকা পে করা হবে। কিংবা জাভা গেম ডাউনলোড করার জন্য টাকা পে করা হবে এরকম উপায় নাই।


জাভা গেম গুলো বর্তমানে নিঃস্ব হয়ে গেছে বললেও বলা যায়। তবে কিছু কিছু জাভা গেম আছে যেগুলো জনপ্রিয় একটু হলেও রয়েছে। সেগুলো নিয়ে যদি আপনি ইউটিউবিং করেন, তবে সকলে খুব ভালবাসবে। সাবস্ক্রাইবার আসবে। যেমন ধরুনঃ এ সমস্ত গেমে ভালো সাবস্ক্রাইবার আসার কারণ হচ্ছে এটার পুরনো জনপ্রিয়তা এখনো রয়েছে। 

জাভা গেম গুলো আপনি মোবাইল বা হ্যাঁন্ড ড্রাফটে খেলে দেখাতে পারেন।


জাভা গেম এর কোন কদর নেই। 



কেন জাভা গেম এর কোন কদর নেই? 

তার কারণ যাবা জাভা নামক অপারেটিং সিস্টেম এর কোনো ব্যবহার বা ইউজার নেই। জাভা ইউজারের সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে। বাংলাদেশ কিছুমাত্র জাভা ফোন আছে। সে জাভা ফোন গুলো থেকে উপার্জন করার উপায় থাকবেনা এটাই স্বাভাবিক। 


জাভা ফোনের ব্রাউজার যদি কাজ করানো যায়, তবে জাভা ফোন থেকে উপার্জন করার কিছু উপায় আমি বলে দিতে পারি।

পড়ুনঃ


জাভা ফোন থেকে কিভাবে আয় করবেন?

জাভা ফোন থেকে আয় করার কতগুলো উপায় আছে। যার মধ্যে আছেঃ

১)Amrtube.com:

amrtube নামক একটি অ্যাপ্লিকেশন ও ওয়েবসাইট আছে। সে ওয়েবসাইটে আপনি গেম খেলে, ভিডিও দেখে, ওয়েবসাইট ভিজিট করে কিংবা নিউজ পেপার এ ক্লিক করে উপার্জন করতে পারেন। ওয়েবসাইট থেকে উপার্জন করার উপায় সমূহ হলোঃ


ইউটিউব ভিডিও দেখে উপার্জন করতে পারেন। ইউটিউব ভিডিওতে লাইক শেয়ার করে উপার্জন করতে পারবেন। একইভাবে অনেক ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইব করে উপার্জন করতে পারেন। amrtube.com সম্বন্ধে আপনি বিস্তারিত জানতে ওয়েবসাইট ঘুরে আসতে পারেন। এখানে ক্লিক করে amrtube ওয়েবসাইটে চলে যান।জাভা গেম খেলে টাকা আয় করুন এখানে।


শুধু তাই নয়, এখানে মাত্র 10 টাকা হলেই রিচার্জ করে নিতে পারবেন। এখানে প্রতিটি ভিডিওতে শেয়ার, লাইক কিংবা সাবস্ক্রাইব করলে পয়েন্ট দেওয়া হয়। সে পয়েন্টগুলো রিডিম করে মোবাইলে রিচার্জ। এমনকি বিকাশে উইথড্র করে নেয়া যায়।



২) earningpoint.club: 

তাছাড়া আছে, আর্নিং পয়েন্ট ক্লাব। আসলে amrtube, earningpoint ক্লাব দুটোই একই রকম। ওয়েবসাইট এ দুটিতে জাভা ফোন থেকে আয় করা যাবে। তবে ধৈর্য্য ধারণ করতে হয়।


এ ওয়েবসাইটগুলো জাভা ফোন, এমনকি বাটন ফোন যেগুলোতে ইউজ করা যায়। বাটন ফোনেও ব্রাউজার আছে। সেগুলোতে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায়। এ সমস্ত অ্যাপ্লিকেশনে আপনি একইভাবে গেম খেলে টাকা আয় করতে পারবেন। তাছাড়া যে কোন একটি ওয়েবসাইট ভিজিট করে, কিংবা এড দেখে উপার্জন করতে পারবেন। 


জাভা ফোন কিংবা বাটন ফোনে ঠিক মত এড, ভিডিও দেখা যায় না। আপনি যদি ঠিকমত এড নাও দেখতে পারেন। তারপরও আপনার earningpoint ওয়েবসাইটে এড আসবে।  তো জাভা ফোনে আপনি চাইলে এভাবে উপার্জন করতে পারেন। earningpoint ক্লাব থেকে আপনি শুধুমাত্র একটি ব্লগে ক্লিক করলেও সামান্য আয় আসবে। 


এছাড়া এখানে যে কোন একটি এডে ক্লিক করলে সামান্য আয় আসে। এটি বাংলাদেশ এর একটি পিটিসি সাইটের মতই। তবে এখানে আয় অনেক বেশি কম হয়। পিটিসি সাইটের তুলনায় বাংলাদেশের সাইট হওয়াই যথেষ্ট কম আর্নিং দেয় বলে আমি মনে করি। তার কারণ এ সমস্ত সাইট উপার্জনক্ষম না। তো আপনাদের উপার্জনই বা দিবে কিভাবে? জাভা গেম খেলে টাকা আয় করা এখানেও সম্ভব


কিভাবে আর্নিং পয়েন্ট ক্লাব এবং amrtube ওয়েবসাইট থেকে, আপনি চাইলে জাভা ফোন দিয়ে উপার্জন করতে পারেন। তাছাড়া জাভা গেম গুলো থেকে উপার্জন করার আরো দুটি উপায় রয়েছে। প্রথমত হলোঃ ইউটিউবিং। দ্বিতীয়তঃ ব্লগিং। এখন প্রশ্ন হতে পারে, ব্লগিং নিয়ে আবার ইউটিউবিং করে কিভাবে আয় করবেন?

আমি আসলে ইউটিউবে জাভা গেম নিয়ে বিভিন্ন স্মৃতি চারণ মূলক ইমোশনাল ভিডিও তৈরি করতে পারেন।  ভিডিওগুলো আপলোড করতে পারেন। এর জন্য অবশ্যই শেষমেশ একটি এন্ড্রয়েড ফোনের প্রয়োজন হবে। দ্বিতীয়ত হচ্ছে, ব্লগিং করে উপার্জন করবেন কিভাবে?


নিজের অভিজ্ঞতা থেকে গেম গুলো  মজা করতেন খেলতে পারেন। সেগুলো নিয়ে কোনো ইমোশনাল স্ট্যাটাসে শেয়ার করে দিলে তা ভাইরাল হয়ে যাওয়ার চান্সই থাকে। যদি একবার ভাইরাল হয়ে যায়, তবে সেখানে  ভিউ থেকে উপার্জন করার অনেক উপায় আছে।


সেগুলো তে যেমন গুগল অ্যাডসেন্স থেকে উপার্জন করানো যায়। তাছাড়া ওয়েবসাইট মনিটাইজেশনে অন্যান্য এড নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা যায়। এভাবে এড শো করিয়ে উপার্জন হয়। একইভাবে ভালো ভিও হলে স্পন্সর, পার্টনারশিপ ও মার্কেটিং করে উপার্জন করা যাবে। এর জন্য ঠিকই একটি কম্পিউটার অথবা একটি এন্ড্রয়েড ফোনের প্রয়োজন পড়বে। 


কাজেই জাভা মোবাইল থেকে উপার্জন সম্ভব না। যদি আপনি জাভা ফোনকে কেন্দ্র করে উপার্জন করতে চান, তবে ভিন্ন ভিন্ন উপায় ভাবতে হবে। তাছাড়া জাভা ফোনে ইন্টারনেট ব্রাউজ করে উপার্জন করা অনেক কষ্টসাধ্য। একারণে ইন্টারনেট ডাটা কানেকশন বেশি খরচ হয়।



শেষ কথাঃ

আমি যদিও কিছুমাত্র উপায় বলে দিলাম। তারপরও নিউজ থেকে সন্দিহান হয়ে এতোটুকু বলছি, জাভা ফোনে উপার্জন করার চিন্তা করা উচিত না। তার কারণ জাভা ফোন থেকে আপনি আসলে ভালো উপার্জন করতে পারেন না। 


জাভা ফোনের মত অপারেটিং সিস্টেম এর কোন মোবাইলে উপার্জন করার ক্ষেত্রে যথেষ্ট সীমাবদ্ধতা আছে। তাছাড়া এ থেকে উপার্জন করতে গিয়ে অনেক কষ্ট কিংবা ধৈর্য ও পরিশ্রম দিতে হবে। যেটা আসলে এক ধরনের বোকামি। 


মোটকথা, আপনার যদি ভালো লাগে। কোনো কিছু জানার থাকে। তবে অবশ্যই আমাদের সাবস্ক্রাইব করবেন। স্ক্রিনের ডান পাশে থাকা বেল আইকনটিতে ক্লিক করে দিন। যাতে আমরা আপনাকে নোটিফিকেশন দিতে পারি। বিভিন্ন ব্লগে লেখালেখির।

পড়ুনঃ


Naimul Islam

নাইমুল ইসলাম Expert Bangladesh এর Founder এবং Owner। সে অবসর সময়ে ব্লগিং ও লেখালেখি করতে ভালোবাসে। একইভাবে অনলাইনে নতুন কিছু শেখা তার প্রধান শখ।

Post a Comment

কমেন্ট করার মিনতি করছি। আমরা আপনার কমেন্টকে যথেস্ট মূল্য প্রদান করি। এটি আমাদের সার্ভিসের অংশ।

তবে কোনো ওয়েবসাইট লিংক প্রকাশ না করার অনুরোধ রইল।

Previous Post Next Post