৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো 4g মোবাইল ফোন কোনটি? (2021)

৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন কোনটি ? ৬০০০ টাকার মধ্যে 4g মোবাইল।


৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন কোনটি


আজকের ব্লগে ৬০০০ টাকার মধ্যে 4g মোবাইল ও তাদের রিভিউ জানবো। পাশাপাশি জানবো ৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন কোনটি ২০২১। আজকের ব্লগে ২০২১ আপডেটের সেরা ফোনগুলোর রিভিউ তুলে ধরার চেস্টা করবো।



Itel ব্র্যান্ডের Itel P33 মোবাইল ফোনের রিভিউ (4G)

দামঃ ৬১৯০ টাকা

Itel P33 স্মার্টফোনটির বর্তমান মূল্য ৬১৯০ টাকা। 



বিভিন্ন ফিচারঃ

  • ফোনটির ডিসপ্লে সাইজ ৫.৫ ইঞ্চি।
  • টোটাল ডিসপ্লে রেজুলেশন হলো ৭২০×১২৮০ পিক্সেল। 
  • এবং ফোনটির স্ক্রীনের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ্যের অনুপাত ১৬:৯। 
  • আইটেল ব্র্যান্ডের এই স্মার্টফোনে এন্ড্রয়েড ৮.১ এর নতুন এডিশন রয়েছে। 
  • এই স্মার্টফোনে আছে ১ জিবি র্যাম। 
  • ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। ফোনটির এক্সটার্নাল স্টোরেজ ৬৪ জিবি পর্যন্ত স্থাপন করা সম্ভব।ফ্রিঙ্গার প্রিন্ট সাপোর্টেড।



যদি আমরা ফোনের ক্যামেরা দিকে তাকাইঃ

  • Itel P33 স্মার্টফোনটির ব্যাক সাইডে আছে ৮ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরা। 
  • সামনে একটি ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে। সেই সেলফি ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল।

Itel P33 স্মার্টফোনটি কোয়াড-কোর ১.৩ গিগাহার্টজ MediaTek MT6580 এর প্রসেসর ব্যবহার করে তৈরি। Itel P33 অন্যান্য হার্ডওয়ার অংশের মধ্যে আছে ৩৮৫০ mAh লি- আয়ন ব্যাটারি। যেটি প্রয়োজনে রিমুভ করা যায়।




BLU ব্র্যান্ডের BLU C6L 2020 মোবাইল ফোনের রিভিউ (4G)

BLU C6L 2020 বাংলাদেশে স্মার্টফোনটির বর্তমান মূল্য মে ২০২১।

BLU C6L 2020 স্মার্টফোনের বাজার মূল্য হচ্ছে ৬০০০ টাকা। 


বিভিন্ন ফিচারঃ

  • C6L 2020 স্মার্টফোনটির ডিসপ্লের সাইজ ৫.৭ ইঞ্চি। যার মধ্যে ৭২.৪ শতাংশে সম্পূর্ণ মোবাইল স্ক্রীন চলে আসে। 
  • IPS এলসিডি টার্চস্ক্রীন ডিসপ্লেতে লাগানো আছে। এটা টাচ স্ক্রিন করতে অনেক স্বস্তি হয়। আরো আছে টার্চস্ক্রীনে ক্যাপাসেটিভ।
  • সাথে আছে ১৬M কালার ডিসপ্লে। এবং ডিসপ্লে রেজুলেশন হলো ৭২০*১৪৪০ পিক্সেল। ডিসপ্লে সাইজের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থের অনুপাত ১৮ঃ৯। এবং ঘনত্বও ভালো। 
  • C6L 2020 ফোনটিতে আছে কোয়াড-কোর ১.৪ গিগাহার্টজএর Cortex-A53 প্রসেসর। 
  • এ স্মার্টফোনে আছে ২ জিবি র্যাম এবং 16 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। 
  • microSDXC সাপোর্ট করে এবং এক্সটার্নাল স্টোরেজে বাড়ানো যাবে। 
  • এটির পিছনে ১৩.৮ মেগাপিক্সেলের আরেকটি ক্যামেরা আছে। এবং ফ্রন্ট সাইটের ক্যামেরা টি হল.৮ মেগাপিক্সেল।ফ্রিংগার প্রিন্ট সাপোর্টেড। ফোনটি এন্ড্রয়েড ভার্সন ১০ দ্বারা পরিচালিত।
  • এটি ৩০০০  mAh স্ট্যান্ডার্ড লি পলিমার ব্যাটারী দ্বারা চলে।

Disclaimer: এসব তথ্যাদি যেকোনো সময় আপডেট হতে পারে। কাজেই এ সম্বন্ধে শতভাগ নিশ্চিত তথ্য দিতে পারছিনা।




Lava Benco Iris 59 রিভিউঃ (4G)

 দামঃ ৫৯৯৯ টাকা

Lava Benco Iris ৫৯ মডেলের বর্তমান মূল্য ৫৯৯৯ টাকা। 

  • অসাধারণ ডিসপ্লে আছে এর। ডিসপ্লে সাইজ ৬.০৮ ইঞ্চি। অর্থাৎ প্রায় ৯১ বর্গ সেন্টিমিটার এর মত।  পুরো ডিসপ্লে 86 দশমিক তিন ভাগ অংশ নিয়ে স্ক্রীনের মূল বডি জুড়ে আছে। 
  • IPS এলসিডি ক্যাপারেটিভ টার্চস্ক্রিন রয়েছে। ফোনটির ডিসপ্লে রেজুলেশন ৬০০ x ১২৮০ পিক্সেল। স্মার্টফোনটির স্ক্রিনের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ্যের অনুপাত ১৯ঃ৯। ২৩২ পিপিআই ঘনত্ব বিশিষ্ট।  
  • Benco Iris 59 স্মার্টফোনটি  ভিন্ন ভিন্ন প্রসেসরে পারফর্ম করে। যেমনঃ কোয়াড-কোর, ৫×ARM কর্টেক্স-A7 প্রসেসর, ইউনিসক এসসি ৭৭৩১ ই প্রসেসর। 
  • ফোনটির র‍্যাম ১ জিবি এবং ১৬ জিবির ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে। যদিও র‍্যাম ২ জিবিতেও পৌছায় নি। তবে এখানে আছে ভালো প্রসেসরের পা্শাপাশি অন্যান্য ফিচার।  
  • ফোনটির এক্সটার্নাল স্টোরেজ ২৫৬ জিবি এক্সটার্নাল মাইক্রোএসডি পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব।
  •  এ স্টাইলিশ ডিভাইসটিতে আছে ৮ মেগাপিক্সেলের একটি দারুন ক্যামেরা। এবং ফ্রন্ট ক্যামেরা টি হচ্ছে ৫ মেগাপিক্সেল এর।  
  • ৬০০০ টাকা দামে এর চেয়ে ভালো মোবাইল আপনি কোথাও পাবেন না। এছাড়াও এখানে আছে ৪০০০ mAh এর একটি ব্যাটারি স্ট্যান্ডার্ড।
আরও দেখুনঃ 




Maximus P3 রিভিউঃ (4G)

দামঃ ৫৯৯৯ টাকা।

Maximus P3 স্মার্টফোনটির বাংলাদেশে কয় মূল্য ৫ হাজার ৯৯৯ টাকা। 


বিভিন্ন ফিচারঃ

  • এর ডিসপ্লে সাইজ ৫.৪ ইঞ্চি। টোটাল ডিসপ্লের ৭৫ দশমিক ১ শতাংশ জায়গা জুড়ে আছে স্ক্রিনের বডি।
  • আরো আছে আইপিএস এলসিডি ক্যাপাসিটিভ টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে। 
  • কোয়াড-কোর ১.৩ গিগাহার্টজ এর প্রসেসর নিয়ে এটি পারফর্ম করে। MediaTek MT6739 প্রসেসর।
  •  স্মার্টফোনটিতে আছে 2 জিবি র্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। তো এদিক থেকে এই ফোনটি যথেষ্ট ভালো পর্যায়ে। 
  • অন্যান্য ৬০০০ টাকার স্মার্টফোনের ২ gb রেম থাকে না। সেখানে ম্যাক্সিমাস মডেলের ফোনটিতে ২ জিবি র‍্যাম স্পেস আছে। 
  • ফোনটির ইন্টারনাল স্টোরেজ ১৬ জিবি। ইন্টারনাল স্টোরেজ যেটিকে ৬৪ gb এক্সটার্নাল স্টোরেজ পর্যন্ত বাড়ানো যায়। এরজন্য এসডি কার্ড ইনপুট করতে হয় আরকি।
  • স্মার্টফোনটির ব্যাক সাইডে ৮ মেগাপিক্সেলেরl একটি সিঙ্গেল ক্যামেরা। এবং ফ্রন্ট সাইটে ৮ মেগাপিক্সেল-এর একটি সিঙ্গেল সেলফি ক্যামেরা আছে।
  • এটি ২৪০০ mAh স্ট্যান্ডার্ড লি- আয়ন ব্যাটারি দ্বারা চালিত হয়। 



Symphony i68 রিভিউ (4G)

দামঃ ৫৯৯০ টাকা

Symphony i68 স্মার্টফোনটির বাংলাদেশি বাজার মূল্য  ৫ হাজার ৯৯০ টাকা।

  •  ফোনটির ডিসপ্লে স্ক্রীন ৫,৪৫ ইঞ্চি পর্যন্ত। যার ৬১ দশমিক ৯ পার্সেন্ট হলো বডি।  স্ক্রিনের বডির অনুপাত।
  • এটিতে আছে আইপিএস এলসিডি ক্যাপাসিটিভ টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে।
  •  16.7M কালার ডিসপ্লে আছে। রেজুলেশন হলো ৭২০x১৪৪০ পিক্সেল।
  • অন্যান্য স্মার্টফোন থেকে এর প্রসেসর অনেকটা ভালোই আছে। এটাতে আছে ১.৪ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর।  
  • এন্ড্রয়েড ৯.০ দ্বারা চালিত।
  • ফোনের রেম ১.৫ জিবি এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ আছে। যেটাকে ৩২ জিবি এক্সটার্নাল স্টোরেজ পর্যন্ত স্থাপন করা যায়। 
  • ফোনটিতে এক্সটার্নাল মাইক্রো-এসডি কার্ড  স্থাপন করা যায়। 
  • এ স্টাইলিশ ডিভাইসটিতে ৮ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা আছে। এবং ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট সাইড সেলফি ক্যামেরা রয়েছে।
  • ফোনটি ২৫০০ mAh লি-আয়ন স্ট্যান্ডার্ড ব্যাটারি দ্বারা পরিচালিত হয়।



Itel A26 রিভিউ (4G)

দামঃ ৬১৯০ টাকা।

Itel A26 ফোনটি বাংলাদেশে ২০২১ এ এসেছে। বর্তমান মে, 2021 অনুযায়ী এর একটি ভেরিয়েন্ট অ্যাভেলেবল আছে। যেটাতে র্যাম হচ্ছে ২।জিবি  রম ৩২ জিবি। বর্তমান স্মার্টফোনটির মূল্য ৬১৯০ টাকা। যা বাংলাদেশে মজুদ আছে।

বিভিন্ন ফিচার (৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন 2021)

  •  Itel A26 এর একটি ভ্যারিয়েন্ট বাংলাদেশে এভেলেবল আছে। এর র‍্যাম ২ জিবি এবং রম ৩২ জিবি।
  •  Itel A26’ এর বর্তমান বাংলাদেশি প্রাইস ৬১৯০ টাকা।
  • এটিতে আছে ৩০২০ mAh ব্যাটারি। এবং এতে কোনো ফাস্ট চার্জিং নেই। 
  • এমনিতে ফাস্ট চার্জিং ফোনগুলোর ব্যাটারি বেশি দিন টিকে না। 
  • সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হলো এটিতে অ্যান্ড্রয়েড ১০ এর নতুন এডিশন চালিত রয়েছে। এবং এটি চালিয়ে ভালোই মজা পাবেন।
  • এখানে আছে Unisoc SC9832 চিপসেট।


মডেল  :Itel A26বাজার মূল্য  :৬১৯০ টাকা

ডিসপ্লে  :5.7″ ৭২০ x ১৫৯০ পিক্সেল

র্যাম  :২ জিবি।

রম  :32 জিবি

রিলিজ হওয়ার তারিখ  :মে, 2021। 

দেখুনঃ এসির দাম ২০২১, বাংলাদেশ।



Itel A26 সংক্ষেপে

Itel A26 ফোনটি ২০২১ সালের সম্প্রতি মে মাসে লঞ্চ হয় এর। এর ডিসপ্লে 5.7 ইঞ্চি।এবং ডিসপ্লে রেজুলেশন হল 720 x 1600 পিক্সেল। দ্বিতীয়তঃ ডিসপ্লে গ্লাস অনেকটাই অজানা এবং প্রটেক্টিং। ফোনের ব্যাক সাইডে একটি সিঙ্গেল ক্যামেরা সেটআপ আছে। ব্যাক সাইডের ক্যামেরাটি 5 মেগাপিক্সেলের। এবং এর ফ্রন্ট ক্যামেরা 2 মেগাপিক্সেল। অন্যদিকে এটাই micro-SDXC সাপোর্ট করে। এটাতে দুটি ডুয়েল ন্যানো- সিম চিপ- পোর্ট আছে।



Samsung Galaxy M01 Core রিভিউঃ ৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন।(4G)

দামঃ ৫৯৯৯ টাকা।

Samsung Galaxy M01 Core এর বর্তমান বাজার মূল্য 5 হাজার 999 টাকা। 



  • ফোনের ডিসপ্লে সাইজ 5.3 ইঞ্চি। এবং এর ৭৪ ভাগ বডি স্ক্রিনে সীমাবদ্ধ। 
  • স্ক্রিনটিতে আছে PLS TFT ক্যাপাসিটিভ টাচস্ক্রিন। আরো আছে 16M কালার ডিসপ্লে। 
  • এর ডিসপ্লে রেজুলেশন হলো  720 x 1480 পিক্সেল। স্ক্রিনের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থের অনুপাত 18.5:9। 
  • Galaxy M01 Core এর ইন্টার্নাল স্টোরেজ হলো ১৬ জিবি। এবং এটিকে 32gb এক্সটার্নাল স্টোরেজ পর্যন্ত চিপসেট লাগানো যায়।ফোনে স্টোরেজ বেশি হওয়ায় আমরা অনায়াসে অসংখ্য ডাটা রাখতে পারি।
  • স্মার্টফোনটি microSDXC সাপোর্ট করে। আবার microSD কার্ড অনায়াসে সাপোর্ট করে।
  • এ স্টাইলিস ডিভাইসটির ব্যাক সাইডে 8- মেগাপিক্সেলের একটি দারুন ক্যামেরা আছে। এবং ফ্রন্ট সাইডে আছে 5 মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা।
  •  এটি 3000 mAh এর লি-আয়ন স্ট্যান্ডার্ড ব্যাটারী দ্বারা চালিত হয়।

জানুনঃ



Lava Z52 Pro রিভিউ (4G)

দামঃ ৬০০০ টাকা।

Lava Z52 Pro স্মার্টফোনটির বর্তমান বাজার মূল্য 6 হাজার টাকা। এবং ফোনটি দারুন। 

  • Lava Z52 Pro এন্ড্রয়েড ফোনের ডিসপ্লে স্ক্রীন ৫.৫ ইঞ্চি। এবং এর সাইজ ৭৮ বর্গ সেন্টিমিটার এর মতো। 
  • এখানে আছে TFT ক্যাপাসিটিভ টাচস্ক্রিন। 
  • 16M কালার ডিসপ্লে আছে এবং রেজুলেশন হলো  ৯৬০ × ৪৮০ পিক্সেল। ফোন স্ক্রিন এর দৈর্ঘ্য ও প্রস্থের অনুপাত ১৮:৯। 
  • Lava Z52 Pro তে অক্টা-কোর  (4×1.6 GHz কর্টেক্স-A55 সিপিইউ এবং ৪×১.২ হার্টজের কর্টেক্স-A55) প্রসেসর চলছে। অর্থাৎ Spreadtrum UniSoC SC9863A প্রসেসর। 
  • স্মার্টফোনটির র‍্যাম ২ জিবি। এতে ১৬ জিবি  ইন্টার্নাল স্টোরেজ আছে। যেটাতে 64 জিবি এক্সটার্নাল স্টোরেজ পর্যন্ত বর্ধিত করা সম্ভব। 
  • এখানে মাইক্রো-এসডি চিপ লাগানো যায়। 
  • এ স্টাইলিশ ডিভাইসের ক্যামেরা 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে। এবং ফ্রন্ট সাইটে 2 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা আছে।

ফোনটির ব্যাটারি যথেষ্ট ভালো। এবং প্রায় 4100 mAh লি-পো (Li-po) ব্যাটারি দ্বারা চালিত। এটি ৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১ বাংলাদেশ।

.আরও দেখুনঃ গেম খেলে বিকাশে পেমেন্ট



Ulefone Note 7Tঃ ৬০০০ টাকার মধ্যে 4g মোবাইল

দামঃ ৬০০০ টাকা।


  • Ulefone Note 7T একটি নতুন ব্র্যান্ড ফোন। বাংলাদেশে এভেলেবেল। এই স্মার্টফোনের র্যাম হলো 2 জিবি। এবং রম হচ্ছে 16 জিবি। 
  •  Ulefone Note 7T ফোনটির বাংলাদেশি বাজার মূল্য 6 হাজার টাকা। 
  • Note 7T তে আছে 3500 mAh এর একটি অসাধারণ ব্যাটারি। সাথে আছে  ফাস্ট চার্জার। যার মাধ্যমে দ্রুত গতিতে ফোনটি চার্জ করে নেয়া যায়। যেটি Mediatek MT6761 দ্বারা পরিচালিত। 
  • ফোনটিতে এন্ড্রয়েড ভার্সন ১০ চালিত রয়েছে। 
  • Helio A22 চিপসেট সংযুক্ত আছে এ মডেলে।


মডেল  :Ulefone Note 7T

বাজার মূল্য : বাংলাদেশি 6000 টাকা

ডিসপ্লে  :6.1″600×1280 pixel পিক্সেল

র্যাম  :2 GB র‍্যাম

রম  :16 জিবি

ফোনটির রিলিজ তারিখ  :নভেম্বরে 2020 সাল।


Ulefone Note 7T ফোনটি জানুয়ারি 2021 এ বাংলাদেশের লঞ্চ হয়েছে। 

  • ফোনটিতে রয়েছে অসাধারণ ডিসপ্লে। ফুল ডিসপ্লে সাইজ 6.1 ইঞ্চি। 
  • আরো আছে IPS এলসিডি প্যানেলের টাচ স্ক্রিন। ফোনের ডিসপ্লে রেজুলেশন 600 x 1280 পিক্সেল। 
  • Note 7T ফোনটিতে তিনটি ক্যামেরা সেটআপ করা আছে। অর্থাৎ ব্যাকসাইড ক্যামেরা তে মোট তিনটি ক্যামেরা আছে। প্রথমটি 5 মেগাপিক্সেলের। এবং বাকি দুটি 2 মেগাপিক্সেল করে।ফোনটির ফ্রন্ট সাইটে আছে 5 মেগাপিক্সেল এর সেলফি ক্যামেরা।
  • microSDXC সাপোর্ট করে। 
  • এছাড়াও দুইটি ন্যানো সিম কার্ড স্লট লাগানো আছে।



Lava Z53 রিভিউ (4G)

দামঃ ৬০০০ টাকা। 

বর্তমান বাজার মূল্য 6000 টাকা।


  •  Lava Z53 স্মার্ট ফোনের ডিসপ্লে 6.1 ইঞ্চি। অর্থাৎ প্রায় 92 বর্গ সেন্টিমিটার। 
  • সম্পূর্ণ ডিসপ্লে এর 80% স্ক্রীনে সীমাবদ্ধ।
  • ডিসপ্লে তে আছে IPS এলসিডি ক্যাপাসিটিভ টাচস্ক্রিন।আরো আছে16M কালার ডিসপ্লে।
  • ফোনের ডিসপ্লে রেজুলেশন  600 x 1280 পিক্সেল। ফোনের স্ক্রিনে দৈর্ঘ্য ও প্রস্থের অনুপাত 19:9।  Z53 ফোনটিতে 1.4 গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর পারফর্মিং এ আছে। 
  • ফোনটির রেম হচ্ছে 1gb।  আর রম 16gb। ইন্টারন্যাল স্টোরেজ সহ 256 জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড লাগানো যাবে।
  • এই স্টাইলিশ ফোনটিতে আছে ৮ মেগাপিক্সেল এর একটি ব্যাকসাইড ক্যামেরা। ৮-মেগাপিক্সেল l এর আরেকটি ফ্রন্ট সাইট সেলফি ক্যামেরা। 
  • ফোনটির স্ট্যান্ডার্ড ব্যাটারিটি 4100 mAh লি-আয়ন ব্যাটারি। এটি ৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন ।


পরিশেষে, দেখুন এখানে ভিন্ন ভিন্ন মডেলের ফোন। এবং প্রতিটি ফোনের কোয়ালিটি আলাদা।তবে সকলের দামের রেঞ্জ ৬০০০ টাকা। এখানকার সবগুলো ফোনই 4g। সম্প্রতি ২০২১ এ আসা ফোনগুলোর যেকোনো একটি ক্রয় করে নিতে পারেন। অথবা কমেন্ট বক্সে জানান, আদৌ কোন ফোন টি বেস্ট হবে!

(৬০০০ টাকার মধ্যে ভালো ফোন কোনটি ২০২১ এসে জানুন।)


আরও পড়ুনঃ 

Naimul Islam

নাইমুল ইসলাম Expert Bangladesh এর Founder এবং Owner। সে অবসর সময়ে ব্লগিং ও লেখালেখি করতে ভালোবাসে। একইভাবে অনলাইনে নতুন কিছু শেখা তার প্রধান শখ।

Post a Comment

কমেন্ট করার মিনতি করছি। আমরা আপনার কমেন্টকে যথেস্ট মূল্য প্রদান করি। এটি আমাদের সার্ভিসের অংশ।

তবে কোনো ওয়েবসাইট লিংক প্রকাশ না করার অনুরোধ রইল।

Previous Post Next Post