ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস

আজকে জানবো, জনপ্রিয় ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস। যদিও দুঃখের ব্যাপার এই যে, গেমটি বর্তমানে বাংলাদেশে ব্যান করা হয়েছে। তারপরেও এর প্লেয়াররা ভিপিএন ব্যবহার করে ফ্রি ফায়ার গেমটি খেলছেন।

আপনি ফ্রি ফায়ার গেমটি খেলে থাকেন অথবা না-ই খেলেন। তবে এর নাম শুনেছেন, এটা নিশ্চিত। আর না শুনলে আজকের ব্লগে তো শুনেই ফেলেছেন। এই গেমটি বর্তমানে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় ব্যাটেল রয়েলস গেম গুলোর মধ্যে একটি। যেটি মোবাইলে সহজেই খেলা যায়। 

the-history-of-free-fire-game

ফ্রী ফায়ার মাত্র এক বছরের মধ্যেই খুব দ্রুত গতিতে ট্রেন্ডিং গেমে পৌঁছে যায়। অন্যান্য গেম যেমনঃ পাবজি মোবাইল থেকেও ফ্রি ফায়ার বাংলাদেশ- ইন্ডিয়াদ রিজিওনে ব্যাপক জনপ্রিয়। কারণ এই গেম Low-End মোবাইলে খুব সহজেই খেলা যায়। অর্থাৎ 2 জিবি র্যামের ফোনে ফ্রি ফায়ার গেমটি কে Run কিংবা প্লে করা যায়। 

এই গেমের সুযোগ সুবিধার মধ্যে আছেঃ 

এখানে ভালো গেমিং এক্সপেরিয়েন্স পাবেন। সাথে থাকছে একটি ছোট ম্যাপ। আর এ ম্যাপের ঠিকানাগুলো প্লেয়াররা খেলতে খেলতে প্রায়ই মুখস্ত করে ফেলেছে। যার কারণে এই গেমের প্লেয়ারদের কাছে গেম খেলার সময় একটা আলাদা স্বাচ্ছন্দ্য আসে। আর  প্রতি ম্যাচে মাত্র 45 জন থেকে শুরু করে 53 জন প্লেয়ার যোগ দান করে। আমি রেংক কিংবা ক্লাসিক ম্যাচের কথা বলছি। 

তাছাড়া ফ্রি ফায়ার গেমের গ্রাফিক্স পাবজির মতো অতটা রিয়েলিস্টিক এবং বিস্তারিত না। অর্থাৎ গ্রাফিক্সের বিশেষ এনিমেশন এর ক্ষেত্রে দুর্বলতার নিদর্শন পাওয়া যায়।

তবে ব্যাটেল রয়েল গেম যে শুধুমাত্র high-performance ডিভাইস, কিংবা পিসিতে খেলা যায়, তা না। বরং যেকোনো পারফরম্যান্সের মোবাইলেও তা খেলা যায়। আর সেটাই ফ্রী ফায়ার আমাদেরকে সহজ করে বুঝিয়ে দিয়েছে। এমনকি নিশ্চিত করে দিয়েছে।

ফ্রী ফায়ার গেমটির জনপ্রিয়তার পেছনে আরও একটি কারণ ছিল। সেটা হলো বিভিন্ন ধরনের ফিচার, ক্যারেক্টার, লুট, আইটেম, স্কিন(Skin), Pet এবং কালেকশন। 


ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস ও সত্যতা।

পুরো পৃথিবীতে ফ্রী ফায়ার বর্তমান গেমগুলো মধ্যে একটি জনপ্রিয় মোবাইল গেম। 2019 সালে ফ্রী ফায়ার প্রথম খেতাব অর্জন করে "most downloaded game in the world" গুগল প্লে স্টোরে। 2020 সালে ফ্রী ফায়ার 100 মিলিয়ন ইউজারের গেম হিসেবে বড় খেতাব অর্জন করে।

তবে আজকে, এখানে আমরা জানবো ফ্রি ফায়ারের ইতিহাসকে আরো একটু কাছ থেকে। ফ্রী ফায়ার গেমটি কে বা কারা প্রতিষ্ঠা করেছে? এবং ফ্রী ফায়ার গেমটি কিভাবে পুরো পৃথিবীতে জনপ্রিয়তার সম্মুখ ভাগে চলে আসে? এ সম্বন্ধে বিস্তারিত জানব। 


১। ফ্রি ফায়ার গেমের বিভিন্ন অজানা সব ফ্যাক্টঃ

ফ্রী ফায়ার এর অনেক তথ্য সম্বন্ধে আপনারা ভালোমতো অবগত নন। এমন অনেক ইনফরমেশন আপনাদের মাঝে ঘাটতি আছে, যেগুলো আমরা প্রায় সময় ভাবি একরকম, কিন্তু আদৌতে ব্যাপারটা অন্যরকম। আসলে সত্যটা কি? অর্থাৎ ফ্রী ফায়ার সম্বন্ধে বিভিন্ন ফ্যাক্ট আমরা এখন জানব।

আপনারা অনেকেই ফ্রী ফায়ার মাসের পর মাস, বছরের পর বছর খেলছেন। তারপরও ফ্রি ফায়ারের কিছু তথ্য সম্বন্ধে আপনাদের ঘাটতি আছে। অনেক কিছুই জানেন না। ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস দেখলেই বুঝতে পারবেন।

আমরা আপনাকে ফ্রী ফায়ার এর বিভিন্ন ফ্যাক্ট, তথ্য সম্বন্ধে পরিচয় করাবো। 

★ ফ্রি ফায়ার গেমটির ডেভেলপার কে?

তো অনেকেই বলবেন, ফ্রী ফায়ার গ্যারেনা এর মাধ্যমে ডেভেলপ হয়েছে। মানে এই গেমটি যে নতুন নতুন আপডেট আনে, পাশাপাশি যে সকল নতুন নতুন স্ক্রিপ্ট কিংবা প্রোগ্রামের মাধ্যমে গেমটিকে সাজানো হয়। সেটাই ডেভেলপিং এর মাধ্যমে হয়েছে। 

অনেকেই উত্তর দিবেন, অবশ্যই ফ্রি ফায়ার গ্যারেনার নিজস্ব অ্যাপ্লিকেশন। তাই গ্যারেনাই হলো ফ্রি ফায়ার এর ডেভেলপার।  কিন্তু ফ্রি ফায়ার গেম ডেভেলপার হল 111 Dots Studio,  Vietnamese studio। পরবর্তীতে গ্যারেনা সম্পূর্ণ প্রজেক্ট নিজের করে নেয়। এবং সেটি গুগল প্লে স্টোরে পাবলিশ করে। তাছাড়া বিভিন্ন এপ স্টোরেও পাবলিশ করে।

তো গ্যারেনা কোম্পানি ফ্রী ফায়ার গেমের পাবলিশার, ডেভেলপার নয়! 

ফ্রি ফায়ার গেম কোন দেশের?

তাছাড়া যদি বলা হয় যে, ফ্রী ফায়ার গেম কোন দেশের? তবে অনেকে বলে ফেলবেন, চীনের। যেহেতু ফরেস্ট লি ( না জানলে বলে রাখি, ফরেস্ট লি কিন্তু গ্যারেনা কোম্পানির মালিক। আর সি লিমিটেড কোম্পানির ১৪ অংশ তার শেয়ারেই আছে।) একজন চীনা বংশোদ্ভূত। পাশাপাশি সি লিমিটেড কোম্পানিকেও একটি চীনা কম্পানি বলা হয়। 

কিন্তু না, ফ্রি ফায়ার গেমটির স্বত্বাধিকারী কোন দেশ? এ প্রশ্ন আসলে উত্তর হয়, সিঙ্গাপুর! কারণ গেমটি পাব্লিসার কিন্তু গ্যারেনা। আর গ্যারেনা সম্পুর্ণ সিংগাপুর দেশ থেকেই বিলং করে।

ফ্রি ফায়ার আগে এসেছে নাকি পাবজি মোবাইল?

তাছাড়া আপনারা হয়তো এটাও জানেন না যে, ফ্রী ফায়ার আসলে পাবজি গেম এর পূর্বে এসেছিল। অর্থাৎ লঞ্চ হয় পাবজি গেম এর পূর্বে। প্রথম মোবাইল ব্যাটেল রয়েল গেম পাব্জি নয়, বরং ফ্রি ফায়ার। 

কেউ যদি বলে পাব্জিকে কপি করে ফ্রি ফায়ার এসেছে। তাহলে তাকে সামনা সামনি অপমান করুন। কারণ ফ্রি ফায়ার এন্ড্রয়েডে আগে এসেছে, পাব্জি নয়!

PUBG Mobile হলো কম্পিউটারের পাবজির একটি অ্যাডাপ্ট করা মোবাইল ভার্সন। পাবজি প্রথম ব্যাটেল রয়েল গেম হিসেবে নিজের পরিচিতি তুলে ধরে বিভিন্ন গেম স্ট্রিমিং ও ইউটিউব ভিডিওতে। কিন্তু যদি বলা হয়, সর্বপ্রথম মোবাইল ব্যাটেল রয়েল গেম কোনটি?

তাহলে উত্তর হবে, ফ্রী ফায়ার। তার কারণ ফ্রী ফায়ার সর্বপ্রথম লঞ্চ করা হয়। 

কিন্তু আমরা সবাই জানি, ফ্রী ফায়ার এর পূর্বেই পাব্জির জনপ্রিয়তা অনেক বেশি হয়ে গিয়েছিল। যার কারণে ব্যাটেল রয়েল গেম বলতে আমরা সবার আগেই চিনি পাবজি কে। 


২।  ফ্রি ফায়ার কে বা কারা তৈরি করে? ফ্রি ফায়ার এর ইতিহাস।

Gang Ye এবং Forrest Li এই দুজন হলেন ফ্রি ফায়ার গেম এর মালিক। এবং তাদের প্রত্যেকেই মিলিয়নিয়ার, তবে Forrest li একজন বিলিওনিয়ার। 

ফ্রী ফায়ার গেমটি কিন্তু সাড়ে তিন বছরেরও অধিক সময় পার করে ফেলেছে। এবং এ গেমটি এখনো চলছে। শুধুমাত্র ফ্রি ফায়ার গেম এর  ২০০ মিলিয়ন ইউজার সংখ্যা দেখে, আপনারা বলতে পারেন যে গেমটি আসলেই অনেক বড়।  এবং এই গেমের ইউজার গুলো অনেক বেশি একটিভ থাকে। কারণ এদের অনেকেই গেমে আসক্ত।

ফ্রি ফায়ার গেমটিতে বর্তমানে 100 মিলিয়ন এর মত ইউজার আছে। যেটি 2020 সালে গেমটি অর্জন করে। বর্তমান আগস্ট, 2021 এ যদি বলি ফ্রী ফায়ার গেমটি এখন পর্যন্ত 1 বিলিয়ন ডাউনলোডস সম্পন্ন করেছে।

Forrest Li - 

ফরেস্ট লি হলেন ফ্রী ফায়ার গেমটির সবচেয়ে পরিচিত মালিক বা Owner। কোনো ফ্রি ফায়ার প্লেয়ারকে যদি বলেন, কোন ব্যক্তি ফ্রি ফায়ার গেম এর মালিক? তবে সে অনেক সহজেই বলে দিবে ফরেস্ট লি। কারণ তিনি খুবই পরিচিত একটি মুখ।

ফরেস্ট লি- ইনি হলেন গ্যারেনা কোম্পানির একজন co-owner। 

তিনি আরেকজন co-owner Gang Ye এর থেকেও খুবই পরিচিত একজন ব্যক্তি। যদিও তারা দুজনই ফ্রি ফায়ার গেমের যৌথ প্রতিষ্ঠা করে।


ফরেস্ট লি এর পরিচিতিঃ

ফরেস্ট লি তিয়ানজিন, চীনে 1977 সালে জন্মগ্রহণ করেন। পরবর্তীতে তিনি চীন থেকে সিঙ্গাপুরে স্থানান্তরিত হয়ে বসবাস শুরু করেন।  সিঙ্গাপুরে এসে তিনি এমবিএ ডিগ্রী অধিকার করেন স্ট্যান্ডফোর্ড গ্রাজুয়েট স্কুল অব বিজনেস থেকে। আর ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি নেন Shanghai Jiaotong University থেকে। Forrest Li মার্চ, 2009 সালে বিলিওনিয়ার অধ্যুষিত হন। এবং তার মোট সম্পত্তি দাঁড়ায় $1,8 billion।

একটি গেমিং কোম্পানির অংশীদারিত্ব হয়ে তিনি বেশ ভালো টাকা কামিয়েছেন। Forrest Li যিনি কিনা ফ্রী ফায়ার গেমটি কে প্রতিষ্ঠা করেন। 

তিনি অন্যান্য ই-কমার্স ব্যবসায় টাকা ইনভেস্ট করেও উপার্জন করেন। তিনি একজন খেতাব মানা ব্যবসায়ী। তিনি সি লিমিটেড কোম্পানির 13.4 ভাগ শেয়ার রাখেন,  Sea Limited বর্তমান ফ্রি ফায়ার গেমটির প্রতিষ্ঠাতা কোম্পানি ও এর সকল খরচ বহন করে। 

তার বর্তমান Net Worth দিন দিন বেড়েই চলছে। তার কারণ প্রতিনিয়ত ফ্রী ফায়ারের ডেভলপমেন্ট এবং এর ইউজার সংখ্যা বৃদ্ধি।

Forrest Li ছিলেন Garena কোম্পানিটির প্রতিষ্ঠাতা। যেটি ফ্রি ফায়ার গেমের পাব্লিসার নামেও পরিচিত। এবং ফ্রি ফায়ার গেম এর মালিক। 

ফরেস্ট লি নামকরণের পেছনে রহস্যঃ

একটি ইন্টারভিউতে তিনি এটা প্রকাশ করেন যে, কেন নিজের নামের আগে ইংলিশ শব্দ Forrest ব্যবহার করেছেন? তার কারণ একটি ক্যারেক্টার ছিলো, যার নাম Forrest Gump।  আর ঐ ক্যারেক্টার থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে তিনি নিজের নামের পূর্বে ফরেস্ট শব্দটি যুক্ত করেন। 

তাছাড়া যদি বলা হয় লি শব্দটি কোথা থেকে এসেছে? তবে তিনি বলেন, স্টিভ জবস,  Apple কোম্পানির বিখ্যাত CEO এর একটি বাণীঃ "Stay hungry, stay foolish", এখান থেকেই বাকি নামের শেষ অংশ Li আসে, যতটুকু জানি আরকি।ফরেস্ট লি গারিনা কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন 2009 সালে। 

Garena অর্থ কি? ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস

এখন প্রশ্ন হতে পারে, Garena এর অর্থ আসলে কি? মানে Garena শব্দটির অর্থ কি হতে পারে? 

Garena (G means Global) এর অর্থ হলোঃ Global Arena। অর্থাৎ এমন একটি প্লাটফর্ম, যেখানে পুরো পৃথিবীর যেখান থেকেই ইচ্ছে গেমাররা একে অপরের সাথে কানেক্ট হতে পারবে। অর্থাৎ গেইমাররা একে অন্যের সাথে কানেক্ট হয়ে প্রতিযোগিতা করতে পারবে।

Garena কোম্পানির নামকরণঃ

নিউয়র্কের স্টক এক্সচেঞ্জ, 2017 এর কারণে গ্যারেনার নামটি পরবর্তীতে নামকরণ করা Sea Limited।  কিন্তু আমরা অনেক গেমাররা এখনো গেমটির কোম্পানিকে Garena বলেই উল্লেখ করি। তার কারন আমরা Garena নামটিতে অনেক বেশি খাপ খাইয়ে নিয়েছি।

Forrest Li গেরিনা কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন। এবং সেটিকে অনেক উপরে নিয়ে যান।

যে কোন ব্যবসার মতোই গ্যারেনা কোম্পানিটিও অনেক বেশি বাধা- বিপত্তির সম্মুখীন হয়েছে। এবং সে সকল বাধা বিপত্তি পার করেই এ পর্যন্ত আসতে পেরেছে।  2018 সালে এই কোম্পানিটি 961 মিলিয়ন ক্ষতির সম্মুখীন হয়। তারপরও ইনভেস্টররা কোম্পানিটিকে সক্রিয় রাখতে ইনভেস্ট করতেই থাকে। এ কোম্পানিটি 2019 সাল থেকে প্রফিট অর্থাৎ মুনাফা উপার্জন করা শুরু করে। 

এবং সে বছর 2019 সালেই ফ্রী ফায়ার প্লে স্টোরে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড করা গেম এর খেতাব অর্জন করে। যেটা গুগল প্লে স্টোর নিজ থেকে দেয়।

Forrest Li বর্তমানে 50 জন ধনী ব্যক্তিদের কাতারে আসে সিঙ্গাপুরে। এর মূল কারণ হল গেরিনা কোম্পানির সফলতা এবং নিজের ব্যবসায়ী বুদ্ধিমত্তার কারণে একজন সফল ব্যবসায়ী হয়ে ওঠা।


Gang Ye – 

গ্যারেনা ফ্রী ফায়ার এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা। সত্য বলতে গেলে, Gang Ye হলেন Sea লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা। যেটি বর্তমানে ফ্রি ফায়ার গেমটিকে চালায়। Gang Ye তিনি একজন ইন্টারনেট প্লাটফর্ম প্রোভাইডার।  সি লিমিটেড এর তিনটি প্রধান ব্যবসা এর অন্তর্ভুক্ত আছে, গ্যারেনা, shopee, এবং sea money।

Ye এর আছে শুধুমাত্র একটি আনগ্র‍্যাজুয়েট ডিগ্রী যেটি তিনি Carnegie Mellon University থেকে নিয়েছেন। এবং একটি Bachelor of Science ডিগ্রী নিয়েছেন  Cornell University থেকে। তিনিও সিংগাপুরের শীর্ষ 50 ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে আসেন। তার মোট সম্পত্তি 900 মিলিয়ন ডলার।

Gang Ye হলেন Garena কোম্পানির Co-owner।

তিনি ২০১৭ সালে সি লিমিটেড কোম্পানির প্রধান অপারেটিং অফিসার হিসেবে নির্বাচিত হন। তার পূর্বে প্রধান প্রযুক্তি বিষয়ক অফিসার পদে তিনি দীর্ঘদিন কাজ করেন।

সর্বপ্রথম Garena কোম্পানি দ্বারা ফ্রি ফায়ার গেমটি পাব্লিস হয়। আর একই বছরে ফ্রি ফায়ার আয় করে ৮৫০০ কোটি টাকা।

Gang Ye সি লিমিটেড এর Shopee ব্যবসায়ে সফলতার পেছনে প্রধান ভূমিকা রাখেন। ফ্রি ফায়ার আসলে একটি free-to-play game। মানে গেমটি খেলা সম্পুর্ণ ফ্রি।

তবে এখানে অসংখ্য microtransactions আছে। এখানে গেমারদের ক্যারেক্টার,  Pet, এবং কালেকশন স্কিন ক্রয় করতে হয় ডায়মন্ডের মাধ্যমে। যা রিচার্জ করতে টাকার প্রয়োজন। প্রতি নতুন সিজনে ও বিশেষ ইভেন্টে একেকরকম স্কিন, কালেকশন আসে গেমটিতে। যেগুলো নিতে ইউজাররা ভালোই টপ আপ করে। আর এর বিনিময়ে গেমটি ভালোই উপার্জন করে নেয়। ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস সম্বন্ধে জানুন।


৩। ফ্রি ফায়ার গেমটি কোন দেশ তৈরি করেছে? কোন দেশ ফ্রি ফায়ার গেমের মালিকানা রাখে?

PUBG Mobile ভারত থেকে ব্যান হয়। কারণ এটি ডেভেলপ ও পাব্লিসড হয় Tencent নামক কোম্পানি থেকে।

Free Fire গেমটি সর্বপ্রথম ডেভেলপ হয় Vietnamese studio দ্বারা। তারপর 111 Dots Studio। পরে গ্যারেনা এ গেমের প্রজেক্ট হাতে নেয় এবং বিশ্বব্যাপী ২০১৭ সালে পাব্লিস করে। 

Garena আসলে Singapore দেশের আওতাধীন কোম্পানি। তবে Tencent এ কোম্পানির একটি বড় অংশ অধিকারে রাখে। মানে পাব্জির কোম্পানির হাত আছে ফ্রি ফায়ারে। So, পাব্জি, বনাম ফ্রি ফায়ার বলে কথা কাটাকাটি অফ রাখেন। কারণ পাব্জি ফ্রি-ফায়ার একে অপরের আপন ভাই।

Tencent কোম্পানিটি গ্যারেনার একটি বড় অংশে শেয়ার রাখলেও, Tencent ফ্রি ফায়ার এর ডেভেলপে কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে না। অর্থাৎ Tencent ফ্রি ফায়ার গেমের ডেভেলপার অথবা পাব্লিসার নয়।

গ্যারেনা কোম্পানির দুজন প্রতিষ্ঠাতা হলেন Forrest Li এবং Gang Ye। যারা আসলে চীনা বংশোদ্ভূত। কিন্তু তারা চীন থেকে Singapore এ স্থানান্তরিত হয়। এবং সেখানে নাগরিকত্ব লাভ করে। যাই হোক, আমরা বলতে পারি Free Fire গেমটি সিংগাপুর থেকে এসেছে, চীন থেকে নয়।


৪। গারিনা ফ্রী ফায়ার এর অসামান্য বিপ্লব : 2017 থেকে 2020।

  • ক্যারেক্টার/ চরিত্র পদ্ধতিঃ

গেরিনা ফ্রি ফায়ার গেমটিতে কতগুলো ক্যারেক্টার বা চরিত্র আছে। এ চরিত্রগুলোর পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়, সর্বপ্রথম যখন ফ্রী ফায়ার গেমটি লঞ্চ হয় 2017 সালে। তবে ক্যারেক্টার পদ্ধতিটি গেমে যুক্ত করা হয় 2018 সালের শুরুতে। আর এটা গেমের মধ্যে সবচেয়ে বড় পরিবর্তন আনে। 

যেমন ধরুন, পাবজি গেম গুলোতে আলাদা ক্যারেক্টার স্কিল ও ভ্যারাইটি থাকে না। আপনি চাইলে সেখানে যেকোনো চরিত্র ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু, গ্যারেনা ফ্রী ফায়ার সম্পূর্ণ ভিন্ন। এখানে ভিন্ন ভিন্ন চরিত্র আছে। আর একটি চরিত্রের এক ধরনের সুপারপাওয়ার থাকে। কোনো ক্যারেক্টারে সুপারপাওয়ার থাকে। আবার কোনো গুলোতে বিশেষ দক্ষতা থাকে। 

যেমনঃ ফ্রী ফায়ার এর সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্যারেক্টার অলক। এর সুপারপাওয়ার হল তার স্কিল অন করলে, সে দ্রুত গতিতে দৌড়াতে পারে। পাশাপাশি তার সেরে উঠার ক্ষমতা HP বেড়ে যায়।

তাছাড়া ক্রোনো ক্যারেক্টার, যেটা কিনা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো বিশ্ব বিখ্যাত ফুটবলার অনুপ্রেরণায় তৈরি করা হয়েছে। তার আরেকটি স্কিল আছে। সেটি হলোঃ যেকোনো ধরনের আঘাত বা অ্যাটাক থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারে। যেটি সুপারপাওয়ার এর মতই।

ফ্রী ফায়ার এ সর্বপ্রথম দুটি ক্যারেক্টার আসে। প্রথমটি Adam। আর দ্বিতীয়টি Eve। পরবর্তীতে যে প্রথম চারটি ক্যারেক্টার লঞ্চ করা হয়ঃ সেগুলো যথাক্রমে Andrew, Kelly, Olivia, Ford। ফ্রী ফায়ার এখন পর্যন্ত ত্রিশটিরও অধিক ক্যারেক্টার বা চরিত্র লঞ্চ করেছে। সেগুলোর বেশিরভাগই ডায়মন্ড টপ আপ এর মাধ্যমে ক্রয় করতে হয়। প্রতিটি চরিত্রের আলাদা স্কীল ও ব্যাকগ্রাউন্ড কাহিনী থাকে।

আপনি চাইলে যেকোনো একটি ক্যারেক্টারের  সর্বোচ্চ চারটি দক্ষতা আনলক করতে পারবেন। আর এই চারটি দক্ষতায় ভিন্ন ভিন্ন ক্যারেক্টার এর স্কিল যুক্ত করতে পারবেন। মানে হল, ১টি চরিত্রে চারটি স্লট থাকে, যেগুলোতে আলাদা আলাদা ক্যারেক্টারের স্কিল যুক্ত করে নেয়া যায়। 

আর এই 4টি ক্যারেক্টারের স্কিল চাইলে আপনি একটার মধ্যেই পেয়ে যেতে পারবেন।


  • Pet system :

গ্যারেনা ফ্রী ফায়ারে pet অর্থাৎ কিছু গৃহপালিত পশুর মত চরিত্র থাকে।  তা 2019 সালে সর্বপ্রথম যুক্ত করা হয়। এবং এটি আসলে ফ্রী ফায়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার বা  সুবিধা। এইসব Pet এ আলাদা পাওয়ার বা শক্তি থাকে। যেগুলো বিশেষ সুবিধা প্রদান করে।


  • Clash Squad mode :

ফ্রি ফায়ারে সর্বপ্রথম ক্লাস স্কোয়াড মুড আসে, এ গেমের দ্বিতীয় অ্যানিভার্সারির সময়। এখানে যেকোনো দুটি স্কোয়াড একে অপরের সাথে খুবই ক্ষুদ্র একটি ম্যাপে ফাইট করবে। এবং সেখানে মোট 7টি রাউন্ড থাকবে। যে স্কোয়াড বা দল সাতটি রাউন্ডের মধ্যে সর্বপ্রথম 4টি গ্রাউন্ড জয় করে নিবে, তারাই হবে উইনার বা বিজেতা।

2020 সালের দিকে ফ্রী ফায়ার ক্ল্যাস স্কোয়াড র‍্যাংকড মোড আসে। মানে এটাকে র‍্যাংকিং মুড হিসেবে তৈরি করা দেয়া হয়েছে। যাতে এই স্ক্যাশ স্কোয়াড খেলার মাধ্যমে প্লেয়ারদের পজিশন স্থির করা যায় যে, কে কত ভালো খেলছে? কার র‍্যাংক কেমন?

এই ক্ল্যাশ স্কোয়াড মুডে আপনি নিজের কয়েন খরচ এর মাধ্যমে gun কিংবা বন্ধুক ক্রয় করতে পারবেন। আর এই কয়েন গেমে অটোম্যাটিক্যালি পাবেন। সেই বন্ধুক কিংবা ওয়েপন ব্যবহার করে পুরো ম্যাচটি চালাতে পারবেন। সেখানে চাইলে গ্লু ওয়াল, গ্রেনেড অন্যান্য বিশেষ আইটেম ক্রয় করে নেয়া যায়।


  • Kalahari map

ফ্রী ফায়ার গেমে সর্বপ্রথম যে ম্যাপটি যুক্ত করা হয় তাহলে বারমুডা ম্যাপ। পরবর্তীতে আসে পুরাগোটারি ম্যাপ। এবং ফ্রী ফায়ার এর সবচাইতে লেটেস্ট ম্যাপটি হলো কালাহারি ম্যাপ। ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস জানুন।

ফ্রি ফায়ারে 2021 সালে এসে নতুন আপডেট এসেছে। যেটা আমরা দেখতেই পাচ্ছি। তাছাড়া র‍্যাংকে আপনি চাইলে আপনার টিমমেটদেরকে পুনরুজ্জীবিত করতে পারবেন। অর্থাৎ যদি কোনো টিমমেটের যদি Death হয়ে যায়, তাহলে তাকে আবার পুনরায় ফিরিয়ে আনা যাবে রিভাইব জোনে গিয়ে।


  • ইলাইট পাস (Elite Pass)

ফ্রী ফায়ার যদিও 2017 সালে লঞ্চ হয় প্লে স্টোরে। তবে 2018 সালের জুন মাসে ফ্রি ফায়ারে সর্বপ্রথম ইলাইট পাস আসে। আমরা সবাই জানি যে, আমাদের base আনলক করতে হয় গেম খেলার মাধ্যমে। যে যত বেশি বেস আনলক করবে সে ডায়মন্ড ব্যবহারে ইলাইট পাস ক্রয় করে নিলে,  নতুন নতুন কালেকশন ও আইটেম নিতে পারবে।

ইলাইট পাস ক্রয় করে নিলে, যদি আপনি বেশি বেশি বেস সংগ্রহ করতে পারেন। তাহলে আপনি অসংখ্য রিওয়ার্ড পাবেন। যেগুলো গেমের কালেকশনকে আরও সমৃদ্ধ করবে। যা ব্যবহার করে বিভিন্ন বান্ডেল, গান স্কিন সহজেই নেয়া যায়।


Free Fire Download Link: এখানে ক্লিক করুন।

তো এই ছিল আমাদের লেখা " ফ্রি ফায়ার গেম এর ইতিহাস"। অতিত থেকে বর্তমান প্রায় সবকিছুই আলোচনা হলো। ভালো লাগলে আমাদের পাশে থাকবেন। সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Rakib

রাকিব Expert Bangladesh এর Founder এবং Owner। সে অবসর সময়ে ব্লগিং ও লেখালেখি করতে ভালোবাসে। একইভাবে অনলাইনে নতুন কিছু শেখা তার প্রধান শখ।

Post a Comment

কমেন্ট করার মিনতি করছি। আমরা আপনার কমেন্টকে যথেস্ট মূল্য প্রদান করি। এটি আমাদের সার্ভিসের অংশ।

তবে কোনো ওয়েবসাইট লিংক প্রকাশ না করার অনুরোধ রইল।

Previous Post Next Post