এডসেন্স একাউন্ট কি? এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়ম

আসসালামু ওয়া আলাইকুম। আমি প্রায় সময় গুগলে বিভিন্ন বিষয়বস্তু নিয়ে ঘাটাঘাটি করি। এর মধ্যে হঠাৎ আমার নজরে পড়ে, গুগল এডসেন্স একাউন্ট কিভাবে খুলতে হয় এ ব্যাপারে জানার অনেকেরই আগ্রহ আছে। তো ভাবলাম, গুগল এডসেন্স একাউন্ট কিভাবে খোলা যায়? তা নিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করে নিলে মন্দ হয় না।

আজকে আমরা গুগল এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়ম ও পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করব। গুগল এডসেন্স একাউন্ট খোলা খুবই সহজ। আপনি নিজে একটি মোবাইল ফোন ব্যবহার করে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।

এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়ম


এডসেন্স একাউন্ট কি?

অনেকেই হয়তো জানেনই না, এডসেন্স অ্যাকাউন্ট কি? অর্থাৎ এডসেন্স একাউন্ট বলতে কী বুঝায়? শুধুমাত্র একটু হয়তো জেনেছেন যে এডসেন্স ব্যবহার করে উপার্জন করা যায়। তার কারণে হয়তো আপনি এসেছেন এডসেন্স একাউন্ট খুলতে।

কিন্তু অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট সম্বন্ধে না জানলে আপনি কিছুই করতে পারবেন না। এডসেন্স হলো গুগলের একটি এড পাবলিশ করার নেটওয়ার্ক। পাবলিশার এবং এডভার্টাইজারদের নেটওয়ার্ক এর মূল কাজ করছে গুগল এডসেন্স।

আবার গুগল এডওয়ার্ড বলে আরো একটি প্রতিষ্ঠান আছে। ওটা হলো অ্যাডভার্টাইজিং এর জন্য। এমন একটি ওয়েবসাইট, যেখানে আপনি যেকোনো একটি এড দিতে পারবেন। আপনি নির্দিষ্ট রেট অনুযায়ী এডটি গুগলের কাছে দিতে পারবেন। 

যেটা গুগোল বিভিন্ন মানুষকে শো করাবে। আপনার ওয়েবসাইট, সার্ভিস অথবা আপনার প্রোডাক্টটি কে সবার সামনে তুলে ধরবে, এডভার্টাইজিং করবে।

এই যে সবার সামনে এড গুলো তুলে ধরবে, সেটা কিভাবে সম্ভব? তার জন্য গুগল বিভিন্ন পাবলিশারদের কাছে যায়, যারা গুগোল অ্যাডসেন্সে পাবলিশার হয়ে কাজ করছে।  আর তারাই এডওয়ার্ড এর এড গুলো তাদের ওয়েবসাইটে প্রদর্শন করে। এত করে এডভার্টাইজিং সম্পন্ন হয়। পুরো প্রক্রিয়া যে একটি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়, তার নাম গুগল এডসেন্স।


এডসেন্স একাউন্ট কার থাকবে?

গুগল অ্যাডসেন্স ওয়েবসাইটে সকল পাবলিশারদের নিজস্ব একটি অ্যাকাউন্ট থাকে। আপনি গুগল অ্যাডসেন্স পাবলিশার হওয়ার জন্য একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। কিন্তু সে অ্যাকাউন্টটি এডসেন্স এড দেখিয়ে আয় করার জন্যে এপ্রুভ করবে কিনা, তার কোন গ্যারান্টি নেই। 

যদি আপনার ওয়েবসাইট মানসম্মত হয়, এডসেন্স এর নিয়ম নীতি অনুসরণ করে তৈরি হয়। তবে অবশ্যই সেটি গুগল এডসেন্স এপ্রুভ করবে। এবং সেই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে আপনি রীতিমত উপার্জন করতে পারবেন। 

তাহলে এডসেন্স একাউন্ট কিঃ Adsense Acoount হলো গুগল এডসেন্স এর ব্যবহারকারীদের নিজস্ব পরিচয় বা পাবলিশারদের নিজস্ব একাউন্ট। যার মাধ্যমে তারা এড ওয়েবসাইটে রান করাতে পারবে, পাশাপাশি কত ইনকাম হচ্ছে তা জানতে পারবে।

আজকের ব্লগে আমরা এডসেন্স নিয়ে আলাপ আলোচনা করব। পাশাপাশি একাউন্ট খোলার সম্পূর্ণ প্রসেস সংক্ষেপে জানবো। যাতে করে আপনারা ধৈর্যহারা না হোন, পাশাপাশি কোনো দ্বিধাও যাতে না থাকে। কিভাবে এডসেন্স একাউন্ট খুলতে হয়? আমি তা টিউটোরিয়াল আকারে আপনাদেরকে দেখাবো।


এডসেন্স একাউন্ট কেন খুলবেন?

যাদের ইউটিউব চ্যানেল আছে। অথবা নিজস্ব ওয়েবসাইট ও ব্লগ সাইট আছে। তারা চাইবেন ইনকাম করার জন্য। যদি আপনার কোন ইউটিউব চ্যানেল থাকে। এবং সেখানে 1000 সাবস্ক্রাইবার এর পাশাপাশি, 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম অতিক্রম করে নেন।  তাহলে আপনি চাইবেন, মনিটাইজেশন অন করে সেখান থেকে উপার্জন করার। 

আবার আপনার যদি একটি ভালো ব্লগ সাইট কিংবা ওয়েবসাইট থাকে, এবং পাশাপাশি সেখানে ভালো ভিজিটর আসে। তাহলে আপনি চাইবেন, সে ভিজিটরদের ব্যবহার করে উপার্জন করার জন্য। 

এমতাবস্তায় ইনকাম করার সবচেয়ে ভালো উপায় হল গুগল এডসেন্সের এড ব্যবহার করা। এই ওয়েবসাইটে প্রদর্শন করিয়ে অ্যাডসেন্স থেকে ভালো পরিমাণে ইনকাম নেয়া যায়। যদি এডসেন্স থেকে আয় করতে চান, তবে অবশ্যই একটি এডসেন্স একাউন্ট খুলতে হবে।

কাজেই যারা ওয়েব সাইটে অ্যাড দেখিয়ে কিংবা ইউটিউব ভিডিওতে এড দেখিয়ে আয় করতে চান, তাদেরকে ১টি এডসেন্স একাউন্ট খুলতে হবে।


এডসেন্স একাউন্ট কোথায় খুলবো?

গুগল এডসেন্স একাউন্ট আমরা সবাই জানি যে, তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে গিয়ে খুলতে হবে। আপনি চাইলে এই লিংকে ক্লিক করে এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়ম শুরু করতে পারেন।


এডসেন্স একাউন্ট খুলতে কি কি লাগবে?

১) আপনি নিজের মোবাইল ফোন ব্যবহার করে একটি এডসেন্স একাউন্ট খুলতে পারবেন। এর জন্য আপনার স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার ডিভাইস এর প্রয়োজন আছে। 

২) তাছাড়া একটি জিমেইল একাউন্টের প্রয়োজন হবে। 

৩) আপনি যে ডিভাইসে এডসেন্স একাউন্ট খুলবেন, সেখানে আগে থেকে কোন এডসেন্স একাউন্ট খোলা যাবে না। 

৪) প্রতিটি ইউজারের জন্য কেবলমাত্র একটি অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট ব্যবহারের নিয়ম আছে। কাজে ভিন্ন ভিন্ন দুটি জিমেইল দিয়ে দুইটি আলাদা একাউন্ট খোলার চেষ্টা করবেন না।

৫) এছাড়া আপনি যে জিমেইল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে খুলতে যাচ্ছেন, সেটিতে পূর্বে কোন এডসেন্স একাউন্ট খোলা থাকলে হবেনা। তাহলে নতুন করে অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন না। অর্থাৎ ঐ জিমেইল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে পারবেন না।


এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়মঃ  

১। প্রথমে Google Adsense এর অফিসিয়াল লিংকে প্রবেশ করতে হবে, মানে ওয়েবসাইটে যেতে হবে।  নতুন এডসেন্স একাউন্ট খোলতে এখানে ক্লিক করুন।

২। এবার নিচের চিত্রের মত করে ইন্টারফেস আসবে। 



এখান থেকে স্ক্রল করে নিচে গেলে এরকম চিত্র দেখবেন। এখানে “শুরু করুন” অপশনে ক্লিক করুন।



৩। এবার নিচের চিত্রের মত করে আরো একটি ইন্টারফেস আসবে। এখানে আপনাকে নিজ জিমেইল এড্রেস ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন-ইন করতে হবে। 



প্রথমত, জিমেইল এড্রেস দিন এবং “Next” অপশনে ক্লিক করুন।

এবার নিচের চিত্রে গিয়ে জিমেইল এড্রেসের পাসওয়ার্ডটি দিতে হবে। পাসওয়ার্ড পূরণ করে আবারো “Next” অপশনে ক্লিক করুন।



৪। সাইন-ইন সম্পন্ন হয়ে গেলে কিছু বেসিক তথ্য দিয়ে ফর্ম পূরণ করতে হবে। নিচের চিত্রের মত করে আরেকটি ইন্টারফেস আসবে। এডসেন্স একাউন্ট কি ও খোলার নিয়ম জানুন।



এখানে প্রথমে Your Site অপশনে নিজের সাইটের লিংক বা এড্রেস দিতে হবে। যেমনঃ www.expert2bd.blogspot.com বা www.expertbd.xyz।

এখানে Get more out of Adsense অপশনে চিত্রের মত করে সিলেক্ট করে দিন।

 


Your payment country অবশ্যই Bangladesh সিলেক্ট করে দিবেন। তারপর নিচের চিত্রের মত টার্মস এন্ড কন্ডিশনে agreement জানিয়ে পরবর্তী ইন্টারফেসে চলে আসুন।



৫। আপনার একাউন্ট আপাতত তৈরি হয়ে গিয়েছে। এখন শুধুমাত্র পেমেন্ট এড্রেস পূরণ করলে পুরোপুরি এডসেন্স একাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে। এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়ম বেশ সোজা-সাপ্টা।

৬। এবার দেখবেন, নিচের চিত্রের মত একটি ইন্টারফেস আসবে। 



এখানে Payment: Tell us about you অপশনটি পূরণ করতে হবে। তাই ওখানে গিয়ে Enter Information এ ক্লিক করুন।

৭। এবার Customar Information নামে একটি ফর্ম দেখবেন। নিচের চিত্রের মত করে পূরণ করবেন।

                                   

৮। প্রথমে Account Type অবশ্যই Individual সিলেক্ট করবেন। তারপর Name & Address কলামে Name দিবেন ইংরেজিতে এবং আপনার পুরো নাম।

Address line-1 এ আপনার বাড়ি/বাসার নাম, হোল্ডিং নম্বর, রাস্তার নম্বর/নাম, পাড়া/মহল্লা, ওয়ার্ড নম্বর দিবেন। যেমনটা চিত্রে দিয়েছি। যদি গ্রামে থাকেন, তবে কেবল গ্রামের নাম আর ওয়ার্ড নম্বর দিলেই হবে।

Address line-2 এ ইউনিয়ন ও উপজেলার নাম দিবেন। মানে ইউনিয়ন, উপজেলা আকারে দিবেন।

City অপশনে নিজ জেলার নাম দিবেন। সকল তথ্য কিন্তু ইংরেজিতে পূরণ করবেন। এবার Postal Code অপশনে নিজ উপজেলার পোস্টাল কোড দিবেন।  মনে রাখবেন, যে উপজেলার পোস্টাল কোড দিবেন সেখানেই কিন্তু এডসেন্স এর পিন ভেরিফাই কোড যাবে। নিজ এলাকার পোস্টাল কোড দিবেন মানে নিজ উপজেলার পোস্টাল কোড দিয়ে দিবেন। 



Mobile অপশনাল। আমি বলব, মোবাইল নম্বর দিতে। আপনি নিজের বা পিতা-মাতার মোবাইল নম্বর দিতে পারেন। সবকিছু সম্পন্ন হলে Submit এ ক্লিক করে দিন। আপনার এডসেন্স একাউন্ট এখন তৈরি। এখন শুধুমাত্র সাইট এপ্র্যভালের জন্য এপ্লাই করতে হবে।

আজকে এতটুকুই থাক। আগামী ব্লগে নয়ত আমরা এডসেন্সে সাইট এপ্রুভাল নেয়ার জন্য এপ্লাই করা ও সম্পুর্ণ প্রসেস জানব। এখন শিখে নিলাম এডসেন্স একাউন্ট খোলার নিয়ম।


শেষকথাঃ 

এডসেন্স একাউন্ট খোলা খুব সহজ। আমি শীঘ্রই এডসেন্স এর কিভাবে সাইটে এপ্লাই করা লাগবে তা নিয়ে নতুন ব্লগ লিখব। কাজেই নজর রাখবেন। আর ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন। আপনাদের সকলের দোয়া কামনা করছি। ধন্যবাদ। খোদা- হাফেজ। 


Naimul Islam

নাইমুল ইসলাম Expert Bangladesh এর Founder এবং Owner। সে অবসর সময়ে ব্লগিং ও লেখালেখি করতে ভালোবাসে। একইভাবে অনলাইনে নতুন কিছু শেখা তার প্রধান শখ।

4 Comments

কমেন্ট করার মিনতি করছি। আমরা আপনার কমেন্টকে যথেস্ট মূল্য প্রদান করি। এটি আমাদের সার্ভিসের অংশ।

তবে কোনো ওয়েবসাইট লিংক প্রকাশ না করার অনুরোধ রইল।

  1. ধন্যবাদ, ভালো লিখেছেন।

    ReplyDelete
  2. আমার ব্লগার সাইটের ইনডেক্স প্রবলেম। কোন সমাধান দিতে পারবেন? সাইট লিংকঃ আইটি ব্লগবিডি

    ReplyDelete
    Replies
    1. ইনডেক্স প্রবলেম সমাধান করা নিয়ে শীঘ্রই পোস্ট লিখব।

      Delete
  3. অপেক্ষায় রইলাম

    ReplyDelete
Previous Post Next Post