টাকা ইনকাম সাইট ২০২১ : অনলাইনে আয় করার উপায়

টাকা ইনকাম সাইট ২০২১


আজকের ব্লগে আমি বিশ্বখ্যাত ১০ টি টাকা ইনকাম সাইট ২০২১ এর সাথে পরিচয় করিয়ে দেবো। যারা আপনার সৃজনশীলতার জন্য মূল্য দিবে।  নতুন আইডিয়ার জন্য মূল্য দিবে এরকম ১০টি ইনকাম সাইটের সাথে পরিচয় করানো যাক।

২০২১ এ এসেও করোনা ভাইরাসের যুঁকি ঠিক আগের মতো রয়ে গেছে। এখনকার সময়ে বেশিরভাগ মানুষ তার সৃজনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে আয় করতে চায়। যদি আপনি সেরকম ব্যাক্তিত্বের মানুষ হন।

যারা বিভিন্ন সমস্যার খুজে নতুন নতুন আইডিয়া বের করে। এবং সে আইডিয়ার উপায়গুলো খুজে বের করে। তাহলে এ ব্লগটি সম্পুর্ণ পড়ুন।

এটা আপনার জন্য সর্বোত্তম সুযোগ হতে পারে। এতে করে ঐসকল মানুষ উপকৃত হবে, যারা প্রতিনিয়ত সমস্যাগ্রস্ত।


বেস্ট ইনকাম সাইট ২০২১; যারা নতুন আইডিয়ার জন্য অর্থ দিবেঃ

এক নজরে কোম্পানি-গুলোর নাম দেখে নিই। যারা আপনার আইডিয়া কিনে নিবেঃ

১। গুগল। ২। ওয়ার্ডপ্রেস।

৩। ওয়াটস আপ। ৪। ফেসবুক।

৫। Apple। ৬। ইউটিউব

৭। Quirky ৮। ইনভেনশন সিটি

৯। হেনকেল ১০। ক্যাল-ভেন-টুলস

১১। ফাস্ট-কাপ  ১২।আইডিয়া বায়ার

১। Whats App

WhatsApp Messenger একটি সাধারণ ম্যাসেজিং এপ। বেশিরভাগই এটি ব্যবহার করে। যদি প্রযুক্তি সম্পর্কে ধারণা থাকে, তবে এখান থেকে আয় করতে  পারবেন।

একটি বিস্তারিত আর্টিকেল লিখে কোনো প্রযুক্তি গবেষকদের বাক ও দুর্বলতা ধরিয়ে দিলেন। এতে করে আপনাকে  ১০০০ থেকে ১৫০০০ ডলার বোনাস দিবে। এভাবে ভালো আইডিয়ার জন্য ওয়াটস এপ আপনাকে অর্থ দিবে।

ভিজিট: WhatsApp


২। Facebook

ফেসুবুক পেজ তৈরী করা মানুষের মাঝে অনেক কমন বিষয়। তবে একটা বিষয় সম্বন্ধে কি জানেন? ফেসবুল Bug Bounty নামক একটি প্রোগ্রাম চালু আছে। যেখানে যেকোনো প্রোগ্রামার বা টেকনোস্পেশালিস্ট যোগ দিতে পারে। এখানে ফেসবুকের এপ সংক্রান্ত বাগ [Bug] ধরিয়ে দিলেই আয় বা অর্থ পাবেন।

তারা রিওয়ার্ড হসেবে আপনাকে এমাউন্ট পেইড করবে। একটি বিস্তারিত রিপোর্ট জমা দিলেই হবে। সেক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৫০০ থেকে ৫০,০০০ ডলার পর্যন্ত রিওয়ার্ড পাবেন।.

ভিজিট: Facebook


৩। Apple

এপল একটি জনপ্রিয় টেকনলজি ভিত্তিক কোম্পানি বা ব্র্যান্ড। এপলের সিকিউরিটি ফিচারের কোনো জবাব নেই। এই নিয়ে হাজার হাজার নিউজ আর্টিকেল ছাপা হয়। কিন্তু এটিও তো একটি মনুষ্যসৃষ্ট কোম্পানি। তাই এরও নানা বাগ [Bug] থাকতেই পারে। আমি অনেক জায়গায় বাগ শব্দটি ব্যবহার করেছি। বাগ আসলে কোনো প্রোগ্রাম জাংক অথবা কাজ না করাকে বোঝায়। চলুন আগের কথায় আসি।

এপলেরও নিজস্ব প্রোগ্রাম লঞ্চ হয়েছে। যেখানে তারা সর্বোচ্চ ১ মিলিয়ন ডলার পে করবে। এটা সত্যিকার-অর্থেই বিরাট ব্যাপার।

ভিজিট: Apple


৪। YouTube; টাকা ইনকাম সাইট ২০২১

এ যুগে আমরা সবাই ইউটিউবের বিশাল ফ্যান। লোকজন ৩টি প্রধান কারণে ইউটিউব ব্যবহার করে।

১। শেখা
২। জানা
৩। বিনোদন।

ইউটিউবের বিভিন্ন কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের সম্বন্ধে হয়তো জানেন।কেউ কেউ হয়তো আপনার খুবই প্রিয়। তারা নিজেদের আইডিয়াকে কাজে লাগিয়ে ইউটিউব থেকে ভালো আয় করছে। এর জন্য শুধুমাত্র নতুন কন্টেন্ট তৈরী করতে হচ্ছে। এভাবে নিজের আইডিয়াকে ফোকাস করে যেকোনো ভিডিও বানান। তা ইউটিউবে পাব্লিস করুন। সেখান থেকে আয় করে নিতে পারবেন।

ভিজিট: YouTube


৫। Quirky

এ কোম্পানিটি আপনার যেকোনো আইডিয়া কিনে নিবে। আপনার উদ্ভাবিত যেকোনো আইডিয়াকে তারা স্পেশাল মনে করে। সেটির প্রতি যথার্থ সম্মান প্রদর্শনও করে।

এই কোম্পানির লক্ষ্য হলো আপনার আইডিয়া গুলোকে ক্যাপচার করা। এখানে কি ধরনের আইডিয়া বা মেধার মূল্য আছে?

১। যেকোনো পণ্য আবিষ্কার ও তা বিক্রয় করার সহজ পদ্ধতি

২।নতুন নতুন প্রোডাক্ট ডিজাইন তৈরী করুন। খাটান নিজের মেধা। এতে করে মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন হবে।

তাদের একটি ধারণার প্রতি আমার সম্মান আটুট থাকবে। তারা মনে করে সেরা আইডিয়াগুলো কখনো চক-বোর্ডের [স্কুল] ঘর থেকে আসে না। সেগুলো আসে সতেজ- জীবিকার ঘর থেকে।

ভিজিট: Quirky


৬। Invention city

এই কোম্পানিটি কোনো প্রোডাক্ট এর উন্নয়ণ, সুরক্ষা, লাইসেন্স, বাস্তবায়ণ বিষয়ক আইডিয়াগুলো কিনে নেয়। মাত্র কিছু সময় নিবে তাদের ওয়েবসাইটে কোনো আইডিয়া সাবমিট করতে। যেকোনো আইডিয়া ভেরিফাই ও এপ্রুভ করে নিতে ৫দিন সময় লাগে। যেকোনো ধরনের ছোটো-খাটো আবিষ্কার তারা অর্থ দিয়ে কিনে নেয়।

৭। Fast-cap

প্রযুক্তিগত যেকোনো বিষয়ে এই কোম্পানি যেকোনো আইডিয়া ক্যাপচার করে নেয়। যেকোনো নতুন আইডিয়ার জন্য আপনাকে এখানে পে করা হবে।

এখানে যেকোনো ইউজারকে Royalties বলে। আর তাদেরকে মাসিক আয় দেয়া হয়ে থাকে।

ভিজিট: Fast-cap


৮। Google

গুগল ব্লগার এমন একটি মাধ্যম, যেখানে আমরা লেখালেখি করতে পারি। নিজের আইডিয়াগুলোকে শেয়ার করতে পারি। এখানে আর্টিকেল লিখে তা কাস্টমাইজ এবং পাব্লিস করা যায়। এখানে আমরা আমাদের চিন্তা-ভাবনা গুলোকে বিলিয়ে দিতে পারি। নিজের মতামত, সৃজনশীলতা অনলাইন দুনিয়ায় শেয়ার করতে পারি।

এখানে আমাদের আইডিয়াগুলো অনলাইন দুনিয়ায় উপকার বয়ে আনে। যার পরিশ্রুতিতে গুগলও আমাদের অর্থ দেয়। এখানে আমরা চাইলে বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, রাজনীতি নিয়ে লেখালেখি করতে পারি। এছাড়া আরো অনেক টপিক নিয়ে চাইলেই লেখা যায়।

আরো পড়ুনঃ ছাত্র অবস্থায় আয় করুন অনলাইনে

এখানে আয় করার জন্য প্রয়োজন এডসেন্স একাউন্ট। যেটি মনিটাইজেশনে ব্যবহৃত হয়। মিলিয়নের মতো লোকজন এখানে লেখালেখি করে। এবং উপার্জনও করে।

ভিজিট: Google


৯। WordPress

ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগারের মতো আরেকটি ওয়েবসাইট ক্রিয়েটর সাইট। এটি আপনাকে যেকোনো একটি ওয়েবসাইট তৈরীতে সাহায্য করবে। নিজের ওয়েবসাইট কাস্টমাইজ ও ডিজাইন করার জন্য এটি বহুল জনপ্রিয়।

আপনাকে নিজের আইডিয়া গুলো মেধা খাটিয়ে সাজাতে হবে। এখানকার কাস্টমাইজারে নানা থিম ও ডিজাইন আছে। যা ডেস্কটপ ও মোবাইল উভয়ের জন্য বেস্ট। এখানেও কন্টেন্ট মনিটাইজ করে আয় করা যায়।

ভিজিট: WordPress


১০। Idea Buyer

যেকোনো ব্যবসা বিষয়ক আইডিয়া আপনি তাদের কাছে বিক্রয় করুন। আর সে পরিমাণ অর্থ নিয়ে যান। এখানে কোনো ব্যবসা সম্বন্ধে ভালো পরামর্শ দিতে পারেন। কিভাবে ব্যবসায়ে বড় বড় প্রোজেক্ট লঞ্চ করতে হয়, সে বিষয়ে ধারণা দিন। আর সেগুলো বিক্রয় করে অর্থোপার্জন করুন। পুরো ব্যবসা ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করা হয়। সে প্রোগ্রামে জয়েন করলে প্রচুর আয় করা যায়।

ভিজিট: Idea Buyer


বোনাস টাকা ইনকাম সাইট ২০২১

আরো কতগুলো কোম্পানি আছে, যেগুলো একই ভাবে আপনাকে অর্থ দিবে। নতুন নতুন আইডিয়ার জন্য। নিচে এরকম ৩টি সাইটের লিংক দেয়া হলো । ভিজিট করে আসুন।

ভিজিট: Invention city

ভিজিট: Henkel

ভিজিট: Cal-Van Tools


পরিশেষে,

কখনো নিজের সৃজনশীল আইডিয়া গুলোকে ধমিয়ে রাখবেন না। মানুষের জীবন-মানের উন্নয়ণে কিংবতন্তীদের আইডিয়া গুলো সবসময়ই ভূমিকা রেখে গেছে। ধন্যবাদ। ভালো লাগলে আরো কিছু আর্টিকেল পড়ে যাবেন। সময় না হলে, আবারো আসার দাওয়াত রইল।


Post a Comment

কমেন্ট করার মিনতি করছি। আমরা আপনার কমেন্টকে যথেস্ট মূল্য প্রদান করি। এটি আমাদের সার্ভিসের অংশ।

তবে কোনো ওয়েবসাইট লিংক প্রকাশ না করার অনুরোধ রইল।

Previous Post Next Post